‘চিকিৎসার্থে’ আমির খান যুক্তরাষ্ট্রে

সংসার সাজাতে নয়, বরং ‘চিকিৎসার জন্য’ যুক্তরাষ্ট্রে আসছেন বলিউড মেগাস্টার আমির খান। গত শুক্রবার রাত ১১টা ৪০ মিনিটে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে দেশ ছাড়েন তিনি! সঙ্গে গেছেন স্ত্রী কিরণ রাও ও ছেলে আজাদ। দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে ঘিরে ছিল নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা। দিল্লি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এই খবর জানিয়েছে ভারতের সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই)।

পিটিআইয়ের খবরের বরাত দিয়ে বিজনেস ইনসাইডার জানায়, রাত সাড়ে ৯টায় মুম্বাই থেকে দিল্লি বিমানবন্দর। সেখান থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের পথে রওনা হয়েছেন ভারতে এই সময়ের সবচেয়ে বিতর্কিত মানুষটি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আমিরের ঘনিষ্ঠ মহলের বরাত দিয়ে বিজনেস ইনসাইডার জানিয়েছে, দেশ ছেড়ে মার্কিন মুলুকে সংসার সাজাতে যাননি আমির। কিছুদিন আগেই ‘দঙ্গল’ ছবির শুটিং চলাকালীন প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছিলেন তিনি, সেই চিকিৎসার জন্যই এবার বিদেশে পাড়ি দিলেন তিনি!

এদিকে ‘দঙ্গল’ চলচ্চিত্রটির পরিচালক নীতেশ তিওয়ারি জানান, লুধিয়ানায় দুর্ভেদ্য নিরাপত্তার মধ্যে ছবিটির প্রথম ধাপের কাজ শেষ করে ওজন কমানোর জন্য আমিরের আমেরিকা যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল আগে থেকেই। ‘দঙ্গল’ ছবিতে হরিয়ানভির কুস্তিগীর মহাবীর ফোগাতের দুটি ভিন্ন বয়সের চরিত্রে অভিনয় করছেন আমির। এ জন্যই ওজন বাড়ানোর পর এবার তা কমাতে হচ্ছে তাঁকে।

কিন্তু চলমান বিতর্কের কারণে মার্কিন মুলুকে পরিবারকে নিয়ে ৫০ বছর বয়সী এই অভিনেতা অনেকদিন অবস্থান করবেন বলে ধারণা করছে বিসনেস ইনসাইডার। পত্রিকাটি লিখেছে, হয়তো পরিস্থিতি শান্ত না হওয়া পর্যন্ত দেশের বাইরে থাকবেন তাঁরা।

এদিকে আমির বিদেশে যাওয়ার পর আজও ভোপালে আমিরের বিরুদ্ধে এমপিনগর থানায় অভিযোগ জমা দিয়েছেন আট-দশজনের একটি আইনজীবী দল। এ ছাড়া ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আজও তাঁর কুশপুতুল পুড়িয়েছে বিজেপি ও শিবসেনা সমর্থকরা।

You Might Also Like