আইএসের উপর বিমান হামলা চালাবে যুক্তরাজ্য

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন সিরিয়ায় বোমা হামলার আভাস দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাজ্যের ‘জাতীয় স্বার্থে’ই সিরিয়ার জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর উপর বোমা বর্ষণ করা হবে। আর সিরিয়ায় বিমান হামলা চালালে এর পরিণতিতে যুক্তরাজ্যে জঙ্গি হামলা হতে পারে বলে যে আশঙ্কা করা হচ্ছে তাও নাকচ করে দিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, যুক্তরাজ্য ইতোমধ্যেই আইএসের টার্গেটে পরিণত হয়েছে। তাই আইএসকে মোকাবিলার একমাত্র পথ হলো ওই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এখনই ‘ব্যবস্থা নেওয়া’। বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের সংসদের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমন্সে এমপিদের উপস্থিতিতে বক্তব্যদানকালে এসব কথা বলেন তিনি।
সিরিয়ায় আইএসবিরোধী হামলায় যোগ দিতে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের অনুমোদন লাগবে। এই অনুমোদনের জন্য কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পার্লামেন্টে ভোটাভুটি হতে পারে।

ক্যামেরন আইএসের বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা গ্রহণে সমর্থন দিতে পার্লামেন্ট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আইএসের বিরুদ্ধে ‘সমন্বিত ব্যবস্থা’ নেওয়ার পক্ষে তিনি।

পার্লামেন্টে ক্যামেরন বলেন, ‘আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র ফ্রান্স হামলার শিকার হয়েছে, আমরা এখনই ব্যবস্থা না নিলে কখন নেব? বিষয়টি নিয়ে আমাদের অন্য মিত্ররাও প্রশ্ন তুলতে পারে, এখন ব্যবস্থা না নিলে কখন?’

তিনি বলেন, নিজের সুরক্ষার জন্য হামলা চালানোর বৈধতা রয়েছে। আইএসের জঙ্গিরা যুক্তরাজ্যের ভেতরেই হুমকি হয়ে উঠেছে। ক্যামেরন বলেন, যুক্তরাজ্য তার নিরাপত্তার বিষয়টি মিত্র রাষ্ট্রগুলোর হাতে ছেড়ে দিতে পারে না।

সিরিয়ায় ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে আইএসবিরোধী বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া। ফ্রান্সও হামলা চালাচ্ছে। ওদিকে জার্মানিও আইএসবিরোধী যুদ্ধে ফ্রান্সের পাশে থাকার কথা ঘোষণা করেছে।

তবে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের অভিযোগ, আইএসের চেয়ে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বিরোধীদের লক্ষ্য করেই বেশি হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন আইএসবিরোধী জোট এক বছরেরও বেশি সময় ধরে সিরিয়া ও ইরাকে আইএসবিরোধী হামলা চালাচ্ছে। সূত্র: বিবিসি

You Might Also Like