আহত ফিলিস্তিনিকে হাসপাতালে ঢুকে হত্যা করল ইসরাইলিরা

অধিকৃত জর্দান নদীর পশ্চিম তীরের দক্ষিণ অংশের আল খলিল বা হেবরন শহরে অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ইহুদিবাদী ইসরাইলিরা একটি হাসপাতালে ঢুকে চিকিৎসাধীন এক ফিলিস্তিনি কিশোরকে গুলি করে হত্যা করেছে। গত কয়েক সপ্তাহ আগে অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখন্ডে সংঘর্ষে গুলিতে আহত হলে তাকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে অবৈধ বসতি স্থাপনকারীর ২১ জনের একটি দল একজন গর্ভবতী নারীর আত্মীয়ের পরিচয়ে আল-খলিল শহরের আহলি হাসপাতালে আহত আজাম শালালদেহ’র কক্ষে প্রবেশ করে তাকে গুলি করে হত্যা করে। ফিলিস্তিন ভিত্তিক আরবি ভাষার ‘আল –ইয়োম’ সংবাদ সংস্থা এ খবর জানিয়েছে। ওই ঘটনার সময় কক্ষে থাকা তার চাচাতো ভাইও ইসরাইলিদের হামলায় আহত হয়েছেন।

হামলাকারীরা পরে আজামের দেহ অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। ২০ দিন আগে সাইয়ের শহরে সংঘর্ষের সময় মারাত্বকভাবে আহত হয়ে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

গত আগস্ট মাসের শেষদিকে ইহুদিবাদী সেনারা আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের নামাজ পড়তে বাধা দেয়। এরপর থেকে জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ইসরাইল বিরোধী কুদস-ইন্দিফাদা বা কুদস-গণজাগরণ শুরু হয়। গত প্রায় দুই মাসের ইন্তিফাদা চলাকালে কমপক্ষে ৮০ জন ফিলিস্তিনি ইহুদিবাদীদের হামলায় শহীদ হয়েছেন।

You Might Also Like