রুশ হামলা সিরিয়া সংকটকে ভয়াবহ রূপ দেবে: আমেরিকা

সিরিয়ায় তৎপর তাকফিরি সন্ত্রাসীদের ওপর রাশিয়ার বিমান হামলার ফলে সিরিয়ার চলমান সংকট ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে আমেরিকা। নিকট প্রাচ্য বিষয়ক মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান প্যাটারসন এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটিকে বুধবার এক শুনানিতে দাবি করেছেন, রাশিয়া আইএসআইএল বা দায়েশ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে হামলা চালানোর পরিবর্তে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সরকারকে শক্তিশালী করছে। রাশিয়ার বিমান হামলার ছত্রছায়ায় সিরিয়ার সেনাবাহিনীর অভিযানে এক লাখ ২০ হাজার সিরিয়বাসী শরণার্থীতে পরিণত হয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

প্যাটারসন বলেন, রাশিয়ার ‘সামরিক হস্তক্ষেপে’ সিরিয়ার জটিল পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের পরিবর্তে রাশিয়া ‘নরমপন্থি’ জঙ্গিদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এ ছাড়া, রাশিয়ার জঙ্গিবিমান বেসামরিক অবস্থান, হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স এবং বাস্তুহারা লোকদের ওপরও হামলা চালাচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন। প্যাটারসন বলেন, সামরিক উপায়ে নয় বরং রাজনৈতিক উপায়ে সিরিয়া সংকটের সমাধান করতে হবে।

সিরিয়া সরকারের অনুরোধে সাড়া দিয়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। এ হামলায় এখন পর্যন্ত শত শত সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা দাবি করছেন, রাশিয়া আসলে প্রেসিডেন্ট আসাদ বিরোধী লড়াইয়ে লিপ্ত ‘মার্কিন সমর্থিত’ জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর ওপর হামলা চালাচ্ছে। আমেরিকার দৃষ্টিতে সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট আসাদের বিরুদ্ধে দুই প্রজাতির সন্ত্রাসী লড়াই করছে। এদের এক প্রজাতি হচ্ছে দায়েশের মতো উগ্র যাদের বিরুদ্ধে তাদের ভাষায় হামলা করা যাবে। অন্য প্রজাতির সন্ত্রাসীরা মার্কিন মদদপুষ্ট। তাদের বিরুদ্ধে হামলা না করে বরং আসাদকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য তাদেরকে হৃষ্টপুষ্ট করতে হবে। কিন্তু রাশিয়া বলেছে, মস্কোর দৃষ্টিতে সন্ত্রাসীদের মধ্যে কোনো শ্রেণিবিন্যাস নেই। সব সন্ত্রাসীকেই নির্মূল করতে হবে।

You Might Also Like