ইয়েমেনে নিষিদ্ধ অস্ত্র ব্যবহার করছে সৌদি আরব

ইয়েমেনে চলমান সামরিক আগ্রাসনে সৌদি আরব আন্তর্জাতিক ভাবে নিষিদ্ধ অস্ত্র ব্যবহার করছে। ইয়েমেনের মানবাধিকার কর্মীরা এ অভিযোগ করেছেন। জাতিসংঘের অনুমোদনের তোয়াক্কা না করে চলতি বছরের ২৬ মার্চ থেকে একতরফা ভাবে এ আগ্রাসন শুরু করেছে সৌদি আরব।

ইরানের ইংরেজি নিউজ চ্যানেল প্রেসটিভি জানিয়েছে, ইয়েমেনের মানবাধিকার কর্মীরা রাজধানী সানায় এক সংবাদ সম্মেলনে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ভাবে নিষিদ্ধ অস্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ তোলেন। তারা বলেন, ফসফরাস এবং গুচ্ছ বোমার মতো নিষিদ্ধ অস্ত্র বিমান হামলায় ব্যবহার করছে সৌদি আরব।

মানবাধিকার কর্মী হাশিম সারাফ আদ দিন বলেন, ইয়েমেনের ব্যাপক এলাকা জুড়ে গুচ্ছ বোমা নির্বিচারে ফেলছে সৌদি আরব। বেসামরিক মানুষের জানমালের ওপর এ বোমার দীর্ঘ নারকীয় প্রভাব পড়বে বলে জানান তিনি।

মানবাধিকার কর্মীরা বলেন, ইয়েমেনের সানা, মা’রিব, সা’দা এবং হিউদাইদাহ্‌ প্রদেশের ঘনবসতি এলাকাগুলোতে এ সব নিষিদ্ধ বোমা বেশির ভাগ ফেলা হচ্ছে।

এদিকে, সৌদি বিমান হামলায় বন্দর হিউদাইদাহ্‌ নগরীতে আহত এক ইয়েমেনি বলেন, মার্কিন এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের বোমা দিয়ে ইয়েমেনের নাগরিকদের হত্যা করছে রিয়াদ। কিন্তু জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ এ সময়ে নীরব ভূমিকা পালন করছে এবং এগিয়ে আসছে না বলে নিন্দা জানান তিনি।

গত আগস্টে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ অবিলম্বে গুচ্ছ বোমা ব্যবহার বন্ধের জন্য সৌদি আরবের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল। পাশাপাশি এ বোমা ব্যবহার বন্ধের চুক্তিতে যোগ দিতেও আহ্বান জানান হয় সৌদি আরবকে।

You Might Also Like