পাশ্চাত্যের সম্ভাব্য আগ্রাসনের বিরুদ্ধে মহড়া শুরু করেছে রাশিয়া

রাশিয়া কৃষ্ণ সাগরে দু’ দিনের নৌমহড়া শুরু করেছে। পাশ্চাত্যের সম্ভাব্য আগ্রাসনের বিরুদ্ধে এ নৌমহড়া গতকাল থেকে শুরু হয়েছে।

ক্রিমিয়া উপদ্বীপের তীরবর্তী কৃষ্ণ সাগরে এ মহড়া চলছে। ক্রিমিয়ার সেভাস্টতোপোল নগরীর কাছে রুশ নৌবহরের ঘাটির কাছে এ মহড়ার আয়োজন করা হয়। কৃষ্ণ সাগরের রুশ নৌবহরের মুখপাত্র এ কথা জানিয়েছেন।

ক্রিমিয়ায় সম্ভাব্য হামলা প্রতিরোধের প্রস্তুতি হিসেবে এ মহড়ার আয়োজন করা হয়। রুশ নৌবহরের গাইডেড মিসাইলবাহী হোভারক্রাফট ‘সামুম’সহ কয়েকটি ছোট রণতরী মহড়ায় অংশ নিয়েছে। এ ছাড়া, এসইউ-২৪ যুদ্ধবিমানও এতে অংশ গ্রহণ করছে।

কল্পিত শত্রুর বিরুদ্ধে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের হামলার মধ্য দিয়ে মহড়ার সমাপ্তি টানা হবে বলে এ মুখপাত্র জানান। গণভোটের মধ্য দিয়ে মস্কোর সঙ্গে যোগ দেয়ার পর সমগ্র ক্রিমিয়ার সেনা ঘাটিগুলোতে রুশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়।

ইউক্রেন সংকট এবং ক্রিমিয়া রাশিয়ায় যোগ দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাশ্চাত্যের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি ঘটেছে। শীতল যুদ্ধের পর আর কখনোই এমন পরিস্থিতি দেখা দেয় নি।

এদিকে রুশ সীমান্ত, বাল্টিক সাগর তীরবর্তী দেশগুলো এবং পূর্ব ইউরোপে সামরিক মহড়া জোরদার করেছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো। এ ছাড়া সিরিয়া সংকট নিয়েও পাশ্চাত্যের সঙ্গে রাশিয়ার টানাপোড়েন তুঙ্গে পৌঁছেছে।

You Might Also Like