নিজামী-মুজাহিদের আইনজীবীকে হয়রানি না করার নির্দেশ

জামায়াতে ইসলামীর আমির মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী ও সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের দুই আইনজীবীকে হয়রানি না করতে নির্দেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালত। একই সাথে দুই আইনজীবীর নিরাপত্তা প্রদান এবং সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে যেন তাদেরকে কোনো হয়রানি না করা হয়- এ সংক্রান্ত একটি আবেদন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন আদালত। আগামী ২ নভেম্বর প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চে এ আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার শুনানি শেষে সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের আদালত এ আদেশ দেন। দুই আইনজীবীর পক্ষে শুনানি করেন- অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী ও আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের দুই আইনজীবী হলেন- অ্যাডভোকেট মো: শিশির মনির ও অ্যাডভোকেট আসাদ উদ্দিন। গত ২৫ অক্টোবর ওই দুই আইনজীবীকে হয়রানি না করতে চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করেন আইনজীবীরা।

আগামী ২ নভেম্বর আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদনের শুনানির দিন ধার্য রয়েছে। আবেদনে মাওলানা নিজামী ও মুজাহিদের মামলার শুনানিকালে আদালতে উপস্থিত থেকে যাতে মামলা পরিচালনায় যথাযথ সহায়তা প্রদান করতে পারেন এবং পেশাগত দায়িত্ব পালনে তাদের বাধা না দেয়া হয়, এ ব্যাপারে আদালতের নির্দেশনা চাওয়া হয়। মুজাহিদ ও সালাহউদ্দিনের রিভিউয়ের সাথেই এসব আবেদনের শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, মাওলানা নিজামী ও মুজাহিদের অন্যতম আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো: শিশির মনিরের বাসায় ২২ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টা ২০মিনিটে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় তিনি বাসার বাইরে অবস্থান করছিলেন। প্রায় এক ঘণ্টা বিরতির পর ডিবি পুলিশসহ আরো অনেক পোশাকধারী পুলিশ তার মোহাম্মদপুরের বাসায় আবারো তাকে খুঁজতে আসে এবং তাকে না পেয়ে তার গাড়িচালক আবদুল আজিজকে নিয়ে যায়।

অপর আইনজীবী অ্যাডভোকেট আসাদ উদ্দিনকে গত ২২ অক্টোবর ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জে যাওয়ার পথে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ের কড্ডার মোড় থেকে আইন-শ্ঙ্খৃলা বাহিনী আটক করে। রাজশাহীগামী ন্যাশনাল ট্রাভেলস্ এর একটি গাড়ি (গাড়ি নং- ৮০৩২) থেকে তাকে তুলে নেয়া হয়। আসাদ উদ্দিনের ছোট ভাই মাহমুদুর রহমান ওই পরিবহনের সুপারভাইজারের সাথে কথা বলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, ডিবি-পুলিশ রাতেই আসাদ উদ্দিনকে সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় নিয়ে আসে। এরপর গতকাল সোমবার আসাদ উদ্দিনকে রাজধানীর একটি আদালতে হাজির করার পর তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

You Might Also Like