দিল্লিতে এবার ২ ও ৫ বছরের শিশু ধর্ষিত

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে এবার দুই ও পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষিত হলো। এই ঘৃণ্যতার বিরুদ্ধে চরম জনরোষ সৃষ্টি হয়েছে। দিল্লির রাস্তায় জড়ো হয়ে হাজারো মানুষ প্রতিবাদ করেছে।

এদিকে শিশুধর্ষণ রুখতে দিল্লি প্রশাসন বিশেষ করে পুলিশি ব্যর্থতা নিয়ে রাজনৈতিক মহল গরম হয়ে উঠেছে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও দিল্লির গভর্নর নাজিব জাংকে দোষারোপ করেছেন। নারীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতার দায় তিনি সরকারের ঘাড়ে চাপিয়েছেন।

অন্যদিকে দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, দুই বছর ও পাঁচ বছরের দুই শিশু পৃথকভাবে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। দিল্লিতে সবশেষ এই দুই ধর্ষণের ঘটনা সরকারকে আবারও নড়েচড়ে বসতে বাধ্য করেছে। প্রশ্ন উঠেছে- দিল্লি কি ধর্ষণের রাজধানীই হয়ে থাকবে?

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবার রাতে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান থেকে দুই বছরের শিশুটিকে অপহরণ করা হয়। পরে তার বাড়ির পাশে একটি ভাগাড়ে ফেলে রেখে যাওয়া হয় তাকে। পুলিশ যখন শিশুটিকে উদ্ধার করে তখনো তার শরীর থেকে রক্ত ঝরছিল। পুলিশ নিশ্চিত করেছে, অন্তত একবার তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে।

অপরদিকে পাঁচ বছরের শিশুটিকে লোভ দেখিয়ে পাশের বাড়িতে নিয়ে তিন ব্যক্তি গণধর্ষণ করে। শুক্রবার ওই তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ভারতের রাজধানী শহরে প্রায়ই বর্বর ধর্ষণ বা গণধর্ষণ হচ্ছে। তিন বছর আগে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে পুরো ভারত।

তথ্যসূত্র : বিবিসি ও আলজাজিরা অনলাইন।

You Might Also Like