আপনাদের কেউ ছিটমহলবাসী বলবে না : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এখন থেকে আর ছিটমহল বলে কিছু থাকবে না। সব ছিটমহল রাষ্ট্রের অংশ। আপনাদের আর কেউ ছিটমহলবাসী বলবে না। ছিটমহলের উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার দাসিয়ারছড়ায় প্রস্তাবিত শেখ হাসিনা বহুমুখী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এক সুধী সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন থেকে আপনারা বাংলাদেশের অংশ। এখানে শিক্ষা, চিকিৎসা, বাসস্থান সব ধরনের সুবিধা দেওয়া হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সব ছিটমহলবাসী এখন রাষ্ট্রের নাগরিক। দাসিয়ারছড়া এখন বাংলাদেশের অন্তর্গত ফুলবাড়ির এলাকা। আমি ফুলবাড়ীতে এসেছি। ফুলবাড়ী এখন নতুন প্রস্ফূটিত ফুলের বাগান। এখানকার নাগরিকরা একেক জন এককটি ফুল।’

বিলুপ্ত ছিটমহলের বাসিন্দাদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আপনারা এখন আর নিজেদের ছিটের বাসিন্দা মনে করবেন না। আপনারা যেন অন্ধকারে না থাকেন সেজন্য বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার উন্নয়নে তিনটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজ শুরু করেছি। হাইস্কুল, মসজিদভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার উদ্যোগ নিয়েছি। চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পঞ্চগড়, নীলফামারী, কুড়িগ্রামে কমিউনিটি ক্লিনিকের ব্যবস্থা করেছি। এছাড়া কাঁচা রাস্তা পাকা করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ছিটমহলের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার।’

দীর্ঘ ৬৮ বছর পর বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্ত হওয়া মানুষগুলো প্রধানমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা। তাকে স্বাগত জানাতে বর্ণিল সাজে সাজিয়েছে দাসিয়ারছড়া ছিটমহলকে।

দুপুরে কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ মাঠে জনসভায় বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় ছিটবাসীর চাওয়া-পাওয়া নিয়ে খোলামেলা কথা বলবেন তিনি।

You Might Also Like