মাকে তালাক দেওয়ায় বাবাকে খুন

মাকে তালাক দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে বাবা একরামুল হক (৫০) কে খুন করেছে ছেলে মাদ্রাসাছাত্র সোহেল (১৯)। সোহেল তার বাবাকে হত্যা করার পর লাশ বাড়ির গোয়াল ঘরে পুঁতে রাখে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের চকঝগড়ু গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঈদের দুইদিন আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর একরামুল হককে হত্যা করা হয়। ঘাতক ছেলে পলাতক রয়েছে।

জানা গেছে, সোহেলের বাবা একরামুল হক সম্প্রতি তার স্ত্রী তাহেরা বেগমকে তালাক দেন। এতে সোহেল ক্ষুব্ধ হয়ে কোরবানি ঈদের দুই দিন আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর তার বাবাকে হত্যা করে বাড়ির গোয়াল ঘরে লাশ পুঁতে রাখে।

এদিকে সেদিন থেকে একরামুল হক নিখোঁজ থাকলে স্বজনরা তাকে বিভিন্ন স্থানে খুঁজতে থাকে। এর একপর্যায়ে হত্যকারী সোহেল গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে তার এক চাচাকে মোবাইল ফোনে জানায়, তার বাবাকে খুঁজে লাভ হবে না। কারণ সে তাকে হত্যা করে লাশ বাড়ির গোয়াল ঘরে মাটিচাপা দিয়ে রেখেছে।

পরে বিষয়টি সদর মডেল থানায় জানালে রাত সাড়ে ১০টার দিকে এসআই মাহবুব ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিষয়টির সত্যতা পান। কিন্তু মাটির নিচ থেকে লাশ উত্তোলনের জন্য ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতি প্রয়োজন থাকায় তিনি ঘটনাস্থল থেকে ফিরে আসেন।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে একরামুল হকের লাশ উত্তোলন করা হবে বলে জানিয়েছেন সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সারওয়ার রহমান।

You Might Also Like