অটবির আগুন নিয়ন্ত্রণে, কারখানা বন্ধ ঘোষণা

রাজধানী ঢাকার অদূরে সাভারের বিরুলিয়ায় অটবি ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে একটি ইউনিট ভস্মীভূত হয়েছে।  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে কারখানার লেয়ার সেকশনের একজেকশনের শট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় অন্তত ২০০ শ্রমিক সেখানে কাজ করছিলেন। ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি ইউনিটের পাঁচ ঘণ্টার চেষ্টায় রাত আড়াইটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) আব্দুস সালাম বলেন, আগুন নেভাতে গিয়ে মাঝখানে আমাদের পানি সংকটে পড়তে হয়েছে। পরবর্তীতে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ব্র্যাক সেন্টার কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করে তাদের পুকুর থেকে পানির ব্যবস্থা করা হয়।

সাভার এবং আশুলিয়া উভয় স্থান থেকেই খাগান এলাকায় অটবির এ কারখানা বেশ খানিকটা ভেতরে হওয়ায় এবং আশপাশে কোনো পুকুর না থাকায় আগুন নেভাতে বেশ বেগ পেতে হয় বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস সংশ্লিষ্টরা।

তবে কারখানা সংশ্লিষ্টরা অভিযোগ করে বলছেন, ফায়ার সার্ভিসের দেরি করে আসার কারণেই আগুনের তীব্রতা বেড়েছে।  অটবি কারখানার জমির মালিক ডা. হাসান আলী জানান, মোট ৩৫ বিঘা জমির ওপর কারখানাটির দুটি ইউনিট গড়ে তোলা হয়। এরমধ্যে ২৫ বিঘা জমির ওপর ইউনিট-১ এবং ১০ বিঘা জমি জুড়ে রয়েছে ইউনিট-২। ইউনিট-১ এর বেশির ভাগই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

কারখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কারখানার ভেতরে থাকা অনেক দামী যন্ত্রপাতি, কাঁচামাল ও ফার্নিচার পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। যেসব ফার্নিচার পুরোপুরি তৈরি হয়ে গিয়েছিল, শুধু সেগুলোরই দামই, অন্তত ৫০ কোটি টাকা। আগুনে অগ্নিদগ্ধ ৫ জন শ্রমিককে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

অটবির কারখানার জিএম জাকির হোসেন বলেন, ৬ বিঘা জমির ওপর নির্মিত এ সেডটির নির্মাণ খরচসহ প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এদিকে, আগুনের কারণে রোববার পর্যন্ত কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অটবির নির্বাহী প্রধান ফারুক ইবনে রায়হান

You Might Also Like