নরসিংদীতে স্কুলছাত্রীকে গলাটিপে হত্যা

নরসিংদীতে রিয়া আক্তার (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রীকে গলাটিপে হত্যা করেছে বাড়ির ভাড়াটিয়া আলমগীর হোসেন।

রোববার গভীর রাতে নরসিংদীর পৌর এলাকার ভেলানগরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রিয়া ভেলানগর মহল্লার রিয়াজুল খন্দকারের মেয়ে। সে শিবপুর উপজেলার কারারচর মৌলভী তোফাজ্জল হোসেন উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, নরসিংদী ল কলেজের শিক্ষার্থী আলমগীর হোসেন দুই বছর ধরে ভেলানগরে রিয়া আক্তারদের বাসায় ভাড়া থেকে লেখাপড়া করত। এরই মধ্যে রিয়াকে একাধিকবার বিয়ের প্রস্তাব দেয় আলমগীর। রিয়া প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়ায় বিয়েতে রাজি ছিল না তার পরিবার। লেখাপড়া শেষে রিয়া ও আলমগীরের মধ্যে বিবাহ দিতে ইচ্ছা প্রকাশ করে রিয়ার পরিবার। গত রাত সাড়ে ১২টার দিকে রিয়ার ঘরে প্রবেশের অনুমতি চায় আলমগীর। অনুমতি না পেয়ে জোরপূর্বক রিয়ার ঘরে প্রবেশ করে দরজা আটকে দেয় আলমগীর। পরে রিয়ার আর্তচিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলে আলমগীর পালিয়ে যায়। পরে রিয়াকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। রিয়ার গলায় একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আবুল কাশেম বলেন, ‘খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ময়নাতদন্ত শেষে হত্যার ধরন সম্পর্কে বলা যাবে। ঘটনার পর থেকে উধাও আলমগীরকে আটকের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। পলাতক আলমগীর হোসেনের বাড়ি মনোহরদী উপজেলায়।’

You Might Also Like