আফ্রিদি চাইলে বিয়ে : আরশি খান

শহিদ আফ্রিদি একেবারেই চুপচাপ। কিন্তু থামছেন না বলিউডের পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত অভিনেত্রী আরশি খান। পাকিস্তানের ক্রিকেট তারকা আফ্রিদির সঙ্গে যৌন সম্পর্কের স্বীকারোক্তি দিয়েছিলেন গত ৮ সেপ্টেম্বর। আর শুক্রবার এই অভিনেত্রী ট্ইুট করে জানিয়েছেন, আফ্রিদি চাইলে তিনি পাকিস্তানের এই ক্রিকেট তারকাকে বিয়ে করতে রাজি আছেন; এই বিষয়ে যেন আর তাকে কেউ কোনো প্রশ্ন না করে।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাবের পর থেকেই তরুণীদের কাছে আফ্রিদি বরাবরই হার্টথ্রব। তবে বিয়ে করার পর থেকে এই অবস্থার বেশ পরিবর্তন ঘটেছে বলেই এক টেলিভিশন সাক্ষাতকারে দাবি করেছিলেন আফ্রিদি। কিন্তু হুট করেই বলিউড অভিনেত্রী আরশি খানের সঙ্গে ৪ কন্যা সন্তানের জনক আফ্রিদির রোমান্সের খবর নিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়াগুলোতে বেশ হৈ চৈ চলছে। আর সেই হৈ চৈ বাড়িয়ে দিয়েছেন স্বয়ং আরশি খান।
খবর রটেছিল, অনেক দিন ধরেই আরশি খান ও আফ্রিদির মধ্যে রোমান্স চলছে। সম্প্রতি দুবাইয়ে দুজনকে বেশ ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা গিয়েছে। এমনকি আফ্রিদির হোটেল কক্ষে দুদিন অবস্থানও করেছেন আরশি। সংবাদটি প্রথম ছাপিয়েছিল ভারতের একটি মিডিয়া। এরপর থেকেই হৈ চৈ-এর শুরু। তবে আরশি খান কখনোই বিষয়টি অস্বীকার করেননি, আবার স্বীকারও করেননি।
অন্যদিকে, পাকিস্তানিদের বিশ্বাস কাজ করছিল যে আফ্রিদিকে হেয় করতে এটা ভারতীয় মিডিয়ার একটি ষড়যন্ত্র। কিন্তু ঘটনার প্রেক্ষাপট পাল্টে গিয়েছে গত ৮ সেপ্টেম্বর আফ্রিদির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে বলে দাবি করে আরশি খানের টুইটার স্ট্যাটাস। এরপর থেকেই আরশিকে নাকি পাকিস্তান ও ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে অজ্ঞাতনামারা ফোন করে প্রাণনাশের হুমকিসহ অকথ্য গালিগালাজ করছেন; পুলিশকে এমনটাই জানিয়েছেন এই মডেল কাম অভিনেত্রী। এমন অবস্থার মধ্যেই শুক্রবার আরশি খান আফ্রিদিকে বিয়ের বিষয়ে টুইটারে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।
এদিকে, অনেকেই বিশ্বাস করছেন যে নিজের মার্কেট ভেল্যু বা তারকা খ্যাতি বাড়াতে এমন নির্লজ্জ আচরণ করছেন আরশি খান। যদিও তিনি জোড়ালোভাবে এই দাবির বিরুদ্ধাচরণ করেছেন।
এদিকে, যাকে নিয়ে এত হৈ চৈ; সেই আফ্রিদি কিন্তু একাবেরই বিষয়টি নিয়ে চুপচাপ। তার পরিবারের সদস্যরাও এই বিষয়ে নিশ্চুপ।

You Might Also Like