গোপালগঞ্জে স্কুলছাত্রকে গলা কেটে হত্যা

গোপালগঞ্জ জেলা শহরের স্বর্ণকলি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র মিনহাজ কাজী (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মিনহাজ গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার জগাচ্চর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য সাহেব আলি কাজীর ছেলে।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে শহরের তেঘরিয়া এলাকা থেকে পুলিশ ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে।

নিহত মিনহাজের বাবা সাহেব আলি কাজী জানিয়েছেন, মিনহাজ রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। পরে অনেক রাতেও সে বাড়ি ফিরে না আসায় তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করা হয়। কিন্তু কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি।

পরে সোমবার সকাল ১১টার দিকে বাড়ি থেকে ৫শ’গজ দূরে নির্মণাধীন মেডিকেল কলেজের পাশে একটি ঢিবির উপর তার গলা কাটা লাশ দেখতে পান স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে পুলিশ হত্যার কারণ জানতে পারেনি।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাকির হোসেন মোল্যা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

You Might Also Like