বাংলাদেশ কনস্যুলেটে জাতীয় শোক দিবস পালন

নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়। এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য কর্মসূচির আয়োজন করা হয় কনস্যুলেট ভবনে।

জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করণের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। বিকেলে আলোচনা সভা এবং মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। জাতির পিতা, তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা জাতির পিতার বর্ণাঢ্য জীবন সম্পর্কে আলোকপাত করেন।

বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সমবেতভাবে কাজ করে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান জানান। জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি  ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং বিশিষ্ট গবেষক ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. নূহ-উল আলম লেনিনও বক্তব্য রাখেন।

কনসাল জেনারেল মো. শামীম আহসান, এনডিসি, তাঁর স্বাগত বক্তব্যে বলেন, দারিদ্র্যের কষাঘাত থেকে জাতিকে মুক্ত করার জন্য বঙ্গবন্ধু গরিবহিতৈষী অর্থনৈতিক নীতি অনুসরণ করেছিলেন।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে যেমন স্বাধীন ভূখণ্ড উপহার দিয়েছেন তেমনি এ দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তিনি বাঙালির সামগ্রিক মুক্তির লক্ষ্যেই পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর থেকে ধারাবাহিক আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালিকে স্বাধীনতার জন্য প্রস্তুত করে তুলেছিলেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রবাসী বাংলাদেশিদের একযোগে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

অন্যান্যদের মধ্যে মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ, বাংলাদেশ কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং পরিবারের অন্যান্য শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে ও দেশের অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

You Might Also Like