প্রায় ৪০০ কোটি টাকা ঋণ দেবে ওয়ালমার্ট

 বাংলাদেশের পোশাক খাতের উন্নয়নে পাঁচ কোটি ডলার (প্রায় ৪০০ কোটি টাকা) পর্যন্ত ঋণ দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক পোশাক বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট। খ্যাতনামা এই প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের অন্যতম ক্রেতা। প্রতিষ্ঠানটি গত বৃহস্পতিবার বিনিয়োগকারীদের জানিয়েছে, বাংলাদেশের পোশাক কারখানার মালিকদের তারা স্বল্প সুদে ওই পরিমাণ অর্থ ঋণ দিতে পারে। কারখানা ভবনের নিরাপত্তাব্যবস্থার উন্নয়নে তারা এই ঋণ দিতে আগ্রহী।

গত জুলাইয়ে ওয়ালমার্ট, গ্যাপ ইনকরপোরেশনসহ বহুজাতিক কয়েকটি মার্কিন প্রতিষ্ঠানের জোট বাংলাদেশকে ১০ কোটি (১০০ মিলিয়ন) ডলার ঋণ দেওয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, ওই পাঁচ কোটি ডলার তারই অংশ। তবে এ রকম বিদেশি ঋণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন লাগবে। সবকিছু চূড়ান্ত হওয়ার পর সুদের হার ঠিক করা হবে বলে জানিয়েছেন ওয়ালমার্টের এক কর্মকর্তা।
ওয়ালমার্টের প্রধান কমপ্লায়েন্স কর্মকর্তা জে জোরগেনসেন বৃহস্পতিবার বিশ্লেষক ও বিনিয়োগকারীদের জানান, কর্মনিরাপত্তার জন্য কীভাবে ওই অর্থ দেওয়া হবে, সে বিষয়ে ওয়ালমার্ট বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা করছে। অর্থ সরাসরি ঋণ আকারে, নাকি শিপমেন্টের আগে পরিশোধ বা অন্য কোনো উপায়ে দেওয়া যেতে পারে, সেসব বিষয় ওই আলোচনার অন্তর্ভুক্ত।
গত এপ্রিলে রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় ১১ শতাধিক পোশাকশ্রমিক মারা যান। এর আগে গত বছরের নভেম্বরে তাজরীন ফ্যাশনসে আগুন লেগে শতাধিক পোশাকশ্রমিক নিহত হন। এসব ঘটনায় কারখানা ভবনের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এ জন্য বাংলাদেশি তৈরি পোশাকের বিদেশি ক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোকেও আংশিক দায়ী করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সমালোচনা ওঠে, বাংলাদেশ থেকে স্বল্প মজুরিতে তৈরি পোশাক কিনলেও শ্রমিকদের জীবনমান ও নিরাপত্তার ঝুঁকি নিয়ে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই।
অভিযোগ ও সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে জুলাইয়ে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলো পোশাক কারখানার কর্মপরিবেশের উন্নয়নে এবং শ্রমিকদের নিরাপত্তা ঝুঁকি হ্রাসে নানা উদ্যোগ নেয়। উদ্যোগের অংশ হিসেবে গঠিত হয় ‘অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি’ নামে ওয়ালমার্টসহ উত্তর আমেরিকার পোশাক বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোর জোট। ‘অ্যাকর্ড অন ফায়ার অ্যান্ড বিল্ডিং সেফটি ইন বাংলাদেশ’ নামে গঠিত হয় ইউরোপীয় পোশাক প্রতিষ্ঠানগুলোর নেতৃত্বাধীন আরেকটি জোট। রয়টার্স ও ব্লুমবার্গ।

You Might Also Like