অসহায় শিশুদের পাশে মেসি

বার্সেলোনা তাঁর পাশে এসে না দাঁড়ালে হয়তো অভাবের কাছে হার মানত একটি প্রতিভা। লিওনেল মেসি হয়তো আজকের মেসি হয়ে উঠতে পারতেন না। পৃথিবীজুড়ে কোটি কোটি সুবিধাবঞ্চিত শিশুর মধ্যেও যে এমন প্রতিভা লুকিয়ে নেই, কে জানে? সবাই ফুটবলার হবে, তা হয়তো নয়।
প্রত্যেকেরই আছে নিজস্ব প্রতিভা আর সম্ভাবনা। কিন্তু অভাবের কাছে সেই প্রতিভা যেন হার না ​মানে।
দীর্ঘ দিন ধরে জাতিসংঘের জরুরি শিশু তহবিল ইউনিসেফের হয়ে কাজ করা মেসি আরও একবার এই আহ্বান জানালেন। শুধু আহ্বান জানিয়েই ক্ষান্ত হননি। নিজে ৪৫ লাখ পেসো (আর্জেন্টাইন মুদ্রা) দানও করেছেন। ‘শিশুদের জন্য একটি সূর্য’ শিরোনামের একটি প্রচারণায় এই অর্থ দান করেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা।
বার্সেলোনায় খেলার সূত্র ধরেই ইউনিসেফের সঙ্গে যুক্ত হন মেসি। বার্সা বিশ্বের শীর্ষ ক্লাবগুলোর মধ্যে একমাত্র ক্লাব ছিল, যারা জার্সির বুকে স্পনসরের লোগো ব্যবহার করত না। ব্যবহার করত ইউনিসেফের লোগো। আর এই লোগো ব্যবহার করে বার্সা টাকা তো পেতই না, উল্টো ইউনিসেফকে দিত বড় অঙ্কের টাকা। স্পেনের ধসে পড়া অর্থনীতির চাপে পড়ে কয়েক বছর আগে কাতার ফাউন্ডেশনের লোগো ব্যবহার করতে শুরু করে বার্সা। তবে ইউনিসেফ এর লোগো এখনো ব্যবহার করছে জার্সির পেছনে।
২০০৯-১০ সালের মার্চে মেসি ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে যুক্ত হন। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য কাজ করছে মেসি ফাউন্ডেশনও।

You Might Also Like