টাকাসহ ৪ ছিনতাইকারীকে ধরে দিলো জনতা : পুলিশ বলছে টাকা পাওয়া যায়নি!

সিলেটের গোলাপগঞ্জে এক মহিলার আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার হাতে আটক ৪ ছিনতাইকারীর কাছে ব্যাগ ছাড়া কোন টাকা পাওয়া যায়নি বলে দাবি করেছে পুলিশ।

বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় সিলেট জকিগঞ্জ সড়কের গোলাপগঞ্জ উপজেলার রানাপিং চন্দনভাগ এলাকার তৈপুর নামক স্থানে ছিনতাইয়ের এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- বিয়ানীবাজার উপজেলার আলীনগর ইউপির ইসমাঈল আলীর ছেলে রিফাত আহমদ (২০), চারখাই ইউনিয়নের চারখাই গ্রামের ফয়জু মিয়ার ছেলে সাহেদ আহমদ (২০), আদিনাবাদ গ্রামের আজমল হুসেনের ছেলে সায়নুল আহমদ (২০) ও গোলাপগঞ্জ উপজেলার আমুড়া ইউপির আমুড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে রুহুল আমিন (২০)।

ছিনতাইর শিকার রানাপিং শেরপুর গ্রামের হারিস উদ্দিনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৩৫) জানান, ভূমি ক্রয়ের জন্য আড়াই লাখ টাকা তার ঘরে ছিলো। কিন্তু জমি রেজিস্ট্রি হতে কয়েক দিন দেরী হওয়া টাকাগুলো তিনি বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে গোলাপগঞ্জের একটি ব্যাংকে জমা দিতে সিএনজি অটোরিকশাযোগে যাচ্ছিলেন। কিন্তু রানাপিং চন্দনভাগ এলাকার তৈপুর নামক স্থানে আসার মাত্র ছিনতাইকারীরা গাড়ি থামিয়ে জোর পূর্বক তার কাছে থেকে টাকার ব্যাগ নিয়ে মহিলাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেয়। পরে তিনি চিৎকার দিলে স্থানীয় জনতা আরেকটি সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে ধাওয়া করে হাতেনাতে ৪ জনকে আটক করে। খবর পেয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৪ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

তবে জেসমিন আক্তারের দাবি, ঘটনার পর জনতা টাকা বহনের ব্যাগ ও ছিনতাইকারীদের পুলিশের নিকট তুলে দিলেও পুলিশ বলছে টাকা পাওয়া যায়নি।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বিনয় কুমার জানান, টাকার ব্যাগ পাওয়া গেলেও মাত্র ২ হাজার ৯শ’ টাকা পাওয়া গেছে। ছিনতাইকারীদের আটকের সময় প্রচুর জনতার ধ্বস্তাধ্বস্তি হয়েছে এসময় টাকা খোয়া যেতে পারে। এসময় এক ছিনতাইকারী পালিয়ে গেছে। টাকাগুলো তার কাছে রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

You Might Also Like