উত্তরায় মেগাশপের বিক্রয়কর্মী গণধর্ষিত

রাজধানীর উত্তরায় এক তরুণী (১৮) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। তিনি উত্তরার একটি মেগাশপের বিক্রয়কর্মী। সহযোগীদের নিয়ে পালাক্রমে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেছে তারই এক সহকর্মী।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় উত্তরার রাজলক্ষী মার্কেটের পেছনের একটি নির্মাণাধীন ভবনে জোরপূর্বক আটকিয়ে রেখে ওই তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে তার পরিবার অভিযোগ করেছে ।

তরুণীর দুলাভাই বিল্লাল এই অভিযোগ করেন। তিনি ধর্ষকদের একজনের নাম আরিফ বলেও জানান। সে ধর্ষিত তরুণীর সঙ্গে একই মেগাশপে চাকরি করে।
বিল্লাল জানায়, তার শ্যালিকা তাদের সঙ্গে আজমপুরের বাসায় থাকে। মাসখানেক আগে রাজলক্ষীর একটি মেগাশপে সে সেলসম্যানের চাকরি নেয়। প্রতিদিন সে বাসা থেকে হেঁটে কর্মস্থলে আসা-যাওয়া করে।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কাজ শেষে সে (তরুণী) বাসার উদ্দেশে রওয়ানা হয়। একই মেগাশপের সেলসম্যান আরিফ (২৫) এবং আরও দুই যুবক মিলে তাকে মুখ চেপে ধরে পাশের নির্মাণাধীন একটি ভবনে নিয়ে যায়। সেখানে ওই তিন যুবক তাকে হত্যার ভয় দেখিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চলে যায়। তবে আরিফ ছাড়া অন্য দু’জনকে সে চিনতে পারেনি।

তরুণীর দুলাভাই আরো জানান, পরে রাত ১১টার দিকে মেয়েটি বাসায় গিয়ে তার বোন-দুলা ভাইকে বিষয়টি জানায়। আহত অবস্থায় তাকে রাত ৩টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ডিএমসি) হাসপাতালে নিয়ে যান তারা।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সেন্টু চন্দ্র দাস বলেন, ধর্ষিত ওই তরুণী হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি আছে।

উত্তরা (পশ্চিম) থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী হাসান খান জানান, এ ব্যাপারে এখনো কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ধর্ষকদের গ্রেফতারসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধর্ষিত তরুণীর দুলাভাই বিল্লাল জানান, ঘটনার পর তারা হাসপাতালে ওই তরুণীর চিকিৎসা ও সুস্থতা নিয়ে ব্যস্ত আছেন। ব্যস্ততা সারলে এ বিষয়ে থানায় মামলা করবেন।

You Might Also Like