সাকার ফাঁসির রায়: বিএনপি হতাশ, বিস্মিত এবং বেদনাহত

সর্বোচ্চ আদালতের চূড়ান্ত রায়ে যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসির দণ্ড বহাল থাকায় আগের মতোই ‘বিস্মিত’ হয়েছে তার দল বিএনপি; তবে এবার কোনো কর্মসূচি তারা দেয়নি।
বুধবার বিকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, “এই রায়ে আমরা হতাশ, বিস্মিত এবং বেদনাহত।
“আমরা মনে করি, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ন্যায়বিচার পাননি। অন্যায্যভাবে তাকে মুত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।”
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় চট্টগ্রামের রাউজানে কুণ্ডেশ্বরী ঔষধালয়ের মালিক নূতন চন্দ্র সিংহকে হত্যা, সুলতানপুর ও ঊনসত্তরপাড়ায় হিন্দু বসতিতে গণহত্যা এবং হাটহাজারীর এক আওয়ামী লীগ নেতা ও তার ছেলেকে অপহরণ করে খুনের দায়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাকা চৌধুরীর সর্বোচ্চ সাজার রায় বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ।
প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ বুধবার সকাল ৯টায় এই রায় ঘোষণার পর রিপন প্রতিক্রিয়া জানাতে সংবাদ সম্মেলনে আসেন বিকাল ৫টায়।
তিনি বলেন, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এই রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করবেন এবং আপিল বিভাগ তা বিবেচনা করবেন বলে বিএনপি ‘প্রত্যাশা’ করে।
এ কারণে কোনো কর্মসূচি দেওয়া হচ্ছে না বলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানান বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রিপন।
জোটসঙ্গী জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতাদের যুদ্ধাপরাধ মামলার রায়ের পর বরাবরই ‘নিশ্চুপ’ ছিল বিএনপি। আর ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর ট্রাইব্যুনালে সাকা চৌধুরীর ফাঁসির রায়ের এক দিন পর তার দলের প্রতিক্রিয়া জানা গিয়েছিল।
২ অক্টোবর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, সালাউদ্দিন কাদেরের রায়ে তারা ‘বিস্মিত’ ।
সারাদেশে বিক্ষোভের কর্মসূচি দিয়ে তিনি বলেছিলেন, “এই ট্রাইব্যুনাল গঠন ও তার বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নানা বির্তক সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপি মনে করে, মানবতাবিরোধী বিচারের নামে সরকার তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে নির্মূলের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।”
বাবা ফজলুল কাদের (ফকা) চৌধুরীর মতোই সাকা চৌধুরীর রাজনীতির শুরু মুসলিম লীগ থেকে। পরে জাতীয় পার্টি ও এনডিপি হয়ে তিনি বিএনপিতে আসেন। চট্টগ্রাম থেকে ছয়বার সংসদ সদস্য হন তিনি।
সামরিক শাসক এইচ এম এরশাদের শাসনামলে ত্রাণ ও পুনর্বাসন, গৃহায়ণ ওগণপূর্ত এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন সা কা চৌধুরী। বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে মন্ত্রীর মর্যাদায় প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্বও তিনি পালন করেন।

You Might Also Like