চট্টগ্রামে দেওয়াল ও পাহাড় ধসে ৪ শিশুসহ ৬জন নিহত

চট্টগ্রাম নগরীতে দেওয়াল ও পাহাড় ধসে পৃথক ঘটনায় মা-মেয়ে ও তিন ভাইবোনসহ ৬ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দিনগত রাত একটার দিকে এ দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার ও নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলামেইলকে বলেন, ‘শনিবার দিনগত রাতে খুলশী থানার বাঘঘোনায় দেওয়াল ধসে এক নারী ও দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে বায়োজিদ থানার আমিন কলোনী এলাকায় পাগাড় ধসে তিন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সকাল ৯টার দিকে জেলা প্রশাসক স্যার আমিন কলোনী পরিদর্শনে যাবেন।’

তাহমিলুর রহমান আরো বলেন, ‘লালখান বাজারে দেওয়াল ধসের ঘটনায় মরিয়ম বেগম ও সুরাইয়া আক্তারের পরিবারকে ১০হাজার টাকা ও আঁখি আক্তারের পরিবারকে ১০হাজার টাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনুদান দেয়া হয়েছে। এছাড়া আমিন কলোনীর শাহজাহান মিস্ত্রির পরিবারকে ২০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি চট্টগ্রামে পাহাড় ধস ঠেকাতে কার্যক্রম জোরদার করতে নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।’

এদিকে খুলশী থানার ওসি নিজাম উদ্দিন বাংলামেইলকে বলেন, ‘খুলশী থানার বাঘঘোনা পুড়া কলোনী এলাকার খোকনের বাড়ীর দেওয়াল ধসে পাশের একটি কাঁচা বসত ঘরে পড়লে এতে ঘটনাস্থলেই মা-মেয়েসহ তিনজন নিহত হয়। এরা হলেন-মা মরিয়ম বেগম (৩০), তার মেয়ে সুরাইয়া আক্তার (২) ও আঁখি আক্তার (৫)। অতি বর্ষণের ফলে এই ধসের ঘটনা ঘটেছে।’

চট্টগ্রাম বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিসের সহকারি উপ-পরিচালক জসিম উদ্দিন বাংলামেইলকে বলেন, ‘নগরীর বায়োজিদ থানার আমিন জুল মিলের আমিন কলোনীর ৫ নম্বর কোয়ার্টারের শাহজাহান মিস্ত্রির ঘরে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘরের ভেতর মাটি চাপা পড়ে শিশুসহ সাতজন আহত হলে তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক উম্মে সালমা (৮), আরাফাত হোসেন শুভ (১২) ও বিবি মরিয়ম (৪) নামের তিন শিশুকে মৃত ঘোষণা করেন। তারা প্রত্যেকে একে অপরের ভাই-বোন ও শাহজাহান মিস্ত্রির সন্তান। অন্য চারজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অতিরিক্ত বর্ষণের ফলে এই পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে।’

চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে গত শুক্রবার থেকে টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিঁচু এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নগরীর মুরাদপুর, ২ নং গেইট, বহদ্দারহাটসহ বিভিন্ন এলাকায় সড়ক ও বাসাবাড়িতে পানি উঠায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে রোববার সারাদিন বন্দরনগরী চট্টগ্রামে হালকা থেকে মাঝারি মাত্রার বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

You Might Also Like