আখাউড়ায় গণধর্ষণ : অটোরিকশা চালক আটক

আখাউড়ায় গণধর্ষণের ঘটনায় রবিন (২০)নামে এক অটোরিকশা চালককে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা। এরপর বিজিবি সদস্যরা তাকে আখাউড়া থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে আটক করা হয়। গ্রেফতারকৃত রবিনের বাবার নাম মোহাম্মদ আলী। আখাউড়ার হিরাপুর গ্রামে তাদের বাড়ি বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় আখাউড়া উপজেলার গাজীবাজার থেকে এক কিশোরী তার ভাইয়ের শ্বশুড়বাড়ি যাচ্ছিল। এসময় পথে অটোরিকশা চালক রবিন তাকে কৌশলে উপজেলার সীমান্তবর্তী উমেদপুর গ্রামে নিয়ে যায়। এরপর তাকে ভয় দেখিয়ে এলাকার মো. জামাল মিয়া (২৩), ইয়ামিন মিয়া (১৮), জুনায়েত (১৯) ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি(৫০) তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এ সময় ধর্ষিত কিশোরীর চিৎকার শুনে আখাউড়া আইসিপি বিওপির সদস্যরা এগিয়ে এলে ধর্ষণকারীরা পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিজিবি সদস্যরা রবিনকে আটক করে।

এ ঘটনায় ধর্ষিত কিশোরী বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার সকালে আথাউড়া থানায় মামলা দায়ের করে।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজ উদ্দিন ভূঁইয়া আটক হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানে হয়েছে। ধর্ষণকারীদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

অপরদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ জাকির হোসেন ও কাউছার মিয়া নামের অপর দুই অটোরিকশা চালককে আটক করেছে।

You Might Also Like