মারা গেলেন বিশ্বের বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস যখন তাকে বিশ্বের বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি হিসেবে স্বীকৃতি দিল, তখন আরও অন্তত দু’টো বছর বেঁচে থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। সে চাওয়া অর্ধপূরণ রেখেই পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে পরপারে পাড়ি জমালেন সাকারি মোমোই। কিডনি বিকলের কারণে ১১২ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়।
মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) জাপান কর্তৃপক্ষ সাকারি মোমোইয়ের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, রোববার (০৫ জুলাই) তিনি পরলোক গমণ করেন।
এক বিবৃতিতে টোকিওর উত্তরাঞ্চলীয় শহর সাইতামা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সাকারি বহু বছর ধরেই টোকিওতে বসবাস করে আসছিলেন। সম্প্রতি কিডনি জটিলতার কারণে তিনি সেখানকার এক কেয়ার হোমে ভর্তি হন। সেখানেই চিকিৎসাধীন থাকাকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।
মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মজীবন শেষ করা সাকারি মোমোই ১৯০৪ সালের ৫ ফেব্র“য়ারি ফুকুসিমার মিনামিসোমায় জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৪ সালে ১১১ বছর বয়সে তাকে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের পক্ষ থেকে বিশ্বের বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।
স্বীকৃতি পাওয়ার পর কালো স্যুট, সাদা শার্ট আর রূপালি টাই পরা সাকারি তার প্রতিক্রিয়া জানাতে সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, আমি এখনই অন্য কোথাও যেতে চাই না। আরও অন্তত দুটো বছর বাঁচতে চাই।
সাকারি মোমোইয়ের মৃত্যুতে এখন বিশ্বের বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি জাপানের ইয়াসুতারো কোইদে। বয়সে মোমোইয়ের কয়েক মাস ছোট কোইদের বয়স ১১২ বছর।

You Might Also Like