কুমিল্লায় স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা, স্বামী আটক

কুমিল্লার বরুড়ায় শাহীনুর আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ নিহতের স্বামী দেলোয়ার হোসেনকে (৩৫) আটক করেছে।

উপজেলার চিতড্ডা ইউনিয়নের ওড্ডা গ্রামে সোমবার রাতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। শাহীনুর এ বছর বরুড়া শহীদ স্মৃতি সরকারি ডিগ্রি কলেজের স্নাতক পরীক্ষার্থী ছিলেন। মঙ্গলবার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, তিন বছর আগে বরুড়া পাঠানপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে শাহিনুর আক্তারের সঙ্গে ওড্ডা গ্রামের তাবারক হোসেনের ছেলে দেলোয়ার হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগে থাকত। শ্বশুর বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা আনার জন্য দেলোয়ার তার স্ত্রীকে কয়েকবার নির্যাতনও করে। তাদের সংসারে তাসফিয়া নামে এক বছর বয়সী এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

ঘটনার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্ত্রী শাহিনুর আক্তারকে তার স্বামী চাপাতি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে। চিৎকার শুনে বাড়ির লোকজন দেলোয়ার হোসেনকে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে বরুড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বরুড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, নিহতের স্বামী আটককৃত দেলোয়ার তার স্ত্রীকে হত্যা করেছে। তাকে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

You Might Also Like