‘বাংলাদেশের মজুতকৃত গ্যাস শেষ হবে ২০৩১ সালে’

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বাংলাদেশের মজুতকৃত গ্যাসের ব্যবহার অপরিবর্তিত থাকলে ২০৩১ সালেই তা শেষ হবে।

রোববার সকালে দশম জাতীয় সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনার সময় সরকারদলীয় সাংসদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের প্রশ্নের উত্তরে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী।

নসরুল হামিদ বলেন, দেশের প্রাথমিক উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের পরিমাণ ছিল ২৭ দশমিক ১২ বিলিয়ন ঘনফুট (বিসিএফ)। এ পর্যন্ত (মে-২০১৫) ১২ দশমিক ৯৬ বিসিএফ গ্যাস উত্তোলিত হয়েছে। বর্তমানে (জুন-২০১৫) দেশে ১৪ দশমিক ১৬ ট্রিলিয়ন ঘনফুট (টিসিএফ) গ্যাস মজুত রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ২০১৪-১৫ অর্থবছরের মে মাস পর্যন্ত ৮১৫ দশমিক ৯৮ বিসিএফ গ্যাস উত্তোলিত হয়েছে। গ্যাস উত্তোলনের উক্ত হার অপরিবর্তিত থাকলে আরো প্রায় ১৬ বছর অর্থাৎ ২০৩১ সাল পর্যন্ত মজুতকৃত গ্যাস ব্যবহার করা যাবে।

বর্তমানে চাহিদা অনুযায়ী গ্যাস সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না। ভবিষ্যতে গ্যাসের চাহিদা আরো বৃদ্ধি পাবে। ফলে গ্যাসের মজুত হ্রাস পেলে অপরিবর্তিত হারে উৎপাদন বজায় রাখা সম্ভব হবে না।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে গ্যাসের প্রেশার হ্রাসের কারণে বিদ্যমান ক্ষেত্রসমূহের উৎপাদনক্ষমতা হ্রাস পেতে থাকবে। এই অবস্থায় বর্ধিত ঘাটতিসহ ১৬ বছরের অধিক সময় স্বল্পহারে এই গ্যাস ব্যবহার করা সম্ভব হবে বলে জানান তিনি।

You Might Also Like