বরগুনায় গর্ভবতী গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার

বরগুনা সদর উপজেলার কুমিড়মারা গ্রামে গর্ভবতী এক গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালীরা শালিসের নামে জোর করে সাদা কাগজে ওই গৃহবধূর স্বাক্ষর করিয়ে নেয় এবং তার স্বামীর উপর নির্যাতন চালায়।

সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূ জানান, সোমবার সকালে একই গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে শাহীন তার ঘরে ঢুকে তার উপর এই নির্মমতা চালায়। তার গর্ভে সন্তান থাকার কথা জানালেও শাহীন জোর পূর্বক এই নির্যাতন করে। একপর্যায়ে তার চিৎকারে স্বামী মাসুদ খান এসে হাজির হলে শাহীন পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা কর। তখন শাহীনকে দৌঁড়ে ধরে উত্তম-মধ্যম দিয়ে ছেড়ে দেয়।

এদিকে স্থানীয় প্রভাবশালী ইউনুস মিয়া, ছগির, তৈয়ব আলী ও আরো কয়েক জন মিলে কুমিড়মারা স্মৃতি সংসদ ক্লাবে বসে শালিসের নামে ওই গৃহবধূর কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর করিয়ে নেয় এবং সেখানে বসেই তার স্বামীকে মারধর করে তারা চলে যায়। পরে মঙ্গলবার সকালে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেল এ ভর্তি করা হয় এবং তার স্বামীকেও একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বরগুনা সদর থানর (ওসি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিয়াজ হোসেন বলেন, ভূক্তভোগীর এ ব্যাপারে মামলা করলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

You Might Also Like