আমাকে কেউ আঘাত করেনি: সুধীর

দ্বিতীয় ওয়ানডে শেষে স্টেডিয়াম থেকে বের হওয়ার পর ভারতীয় সমর্থক সুধীর গৌতমের ওপর হামলা হয়েছে বলে যে খবর ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে সেটি সত্য নয় বলে সুধীর নিজেই নিশ্চিত করেছে।

সোমবার রাতে বাংলাদেশের একটি গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাতকালে সুধীর একথা জানান।

তিনি বলেন, খেলা শেষ আমি যখন গেট দিয়ে বের হচ্ছিলাম তখন আমি ভারতবিরোধী উচ্ছ্বাস দেখে ভয় পেয়েছিলাম। দূর থেকে অনেকে আমার দিকে তেড়ে আসে। এজন্য আমি ভয় পেয়ে পাশের একটি সেলুনে আশ্রয় নেই।

কেউ সরাসরি আঘাত করেছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সুধীর বলেন, আমাকে কেউ মারতে উদ্যত হয়নি। তাছাড়া কেউ আমার উপর আক্রমণও করেনি। আমি ভয়ে সেলুনে আশ্রয় নেই।

এ ব্যাপারে মিরপুর জোনের এডিসি মাসুদ আহমেদ বলেন, তার উপর হামলার ঘটনা সত্য নয়। আমরা বিষয়টি তদন্ত করেছি। এ ব্যাপারে সুধীরের সঙ্গেও আমাদের যোগাযোগ হয়েছে। খেলা শেষ হওয়ার পর বেশি লোকের উচ্ছ্বাস দেখে তিনি ভীত হয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, গতকাল খেলা শেষে বের হওয়ার পর ভারতীয় ক্রিকেট দলের সমর্থক সুধীরের উপর হামলা হয় বলে খবর প্রচারিত হয়। এবিপি নিউজের মাধ্যমে স্পর্শকাতর খবরটি সারা ক্রিকেট বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে।

ভারত ছাড়াও পাকিস্তানের শীর্ষ দৈনিক ডনসহ আরও অনেক দেশের সংবাদমাধ্যমেও খবরটা গুরুত্বের সঙ্গে প্রচার করা হয়।

এরপর খবরটির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে। প্রশ্ন ওঠার কারণ এবিপি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করা ভিডিওটিতে ‘ভারতের জনপ্রিয় সমর্থক সুধীর গৌতম কথা বলছেন এবিপি নিউজের সঙ্গে’ শিরোনামে এবিপি নিউজের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওটিতে ছবি পোস্ট করার তারিখ দেয়া হয়েছে ২১ জুন, ২০১৫।

ভিডিওটির বর্ণনাতে লেখা হয়েছে, ‘ভারতের জনপ্রিয় সমর্থক সুধীর গৌতম কথা বলছেন এবিপি নিউজের সঙ্গে। ঢাকায় দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচের পর তিনি আক্রমণের শিকার হন।’

কিন্তু ভিডিওটিতে দেখা যায় সুধীর কথা বলছেন দিনের বেলায়। অনেকেরই প্রশ্ন, ২১ জুন রাতে শেষ হয়েছে ম্যাচ। খবরের ভাষ্য অনুযায়ী এর পর আক্রমণের শিকার হন সুধীর। কিন্তু তিনি এ নিয়ে কথা বলছেন দিনের বেলায়। তাহলে ভিডিওটি আজকের হওয়ার কথা। অর্থাৎ​ ২২ জুন। কিন্তু ভিডিওটিতে দেখা যায়, সেটি পোস্ট করা হয়েছে ২১ জুন। এই প্রশ্ন তাই ওঠে, ভিডিওটি আগেই তৈরি করে পোস্ট করা হয়েছে কিনা। স্বাভাবিকভাবেই অনেকেই দাবি করছেন, ইচ্ছে করেই এমন খবর তৈরি করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

এমন খবর প্রকাশের পর সুধীর নিজেই হামলার খবরটি সত্য নয় বলে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন।

You Might Also Like