‘আমেরিকার সঙ্গে ব্যয়বহুল অস্ত্র প্রতিযোগিতায় যাবে না রাশিয়া’

আমেরিকার সঙ্গে আর কোনো ব্যয়বহুল অস্ত্র প্রতিযোগিতায় যেতে চায় না রাশিয়া। একথা বলেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক উপদেষ্টা ইউরি উশাকভ। তিনি এমন সময় একথা বললেন যখন প্রেসিডেন্ট পুতিন তার দেশের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করার কথা ঘোষণা করেছেন।

উশাকভ আজ (বুধবার) মস্কোয় বলেন, “সম্ভাব্য যেকোনো হুমকি প্রতিহত করার চেষ্টা করবে রাশিয়া, তার চেয়ে বেশি কিছু নয়।” তিনি আরো বলেন, “আমরা যেকোনো অস্ত্র প্রতিযোগিতার বিরোধী কারণ স্বাভাবিকভাবেই এটি আমাদের অর্থনৈতিক সক্ষমতাকে দুর্বল করে ফেলে।”

পাশ্চাত্যের সঙ্গে রাশিয়ার সরাসরি সামরিক সংঘাতের আশঙ্কা রয়েছে কিনা-এমন প্রশ্নের ব্যাপারে নীরব থাকেন প্রেসিডেন্ট পুতিনের উপদেষ্টা।

এর আগে প্রেসিডেন্ট পুতিন গতকাল (মঙ্গলবার) বলেছিলেন, চলতি বছর তার দেশের আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ভাণ্ডারে আরো ৪০টি ক্ষেপণাস্ত্র যোগ করা হবে। পুতিন বলেন, কেউ যদি আমাদের দেশের একটা অংশকে হুমকিগ্রস্ত করতে চায় তাহলে আমরা ওইসব দেশের বিরুদ্ধে আমাদের সশস্ত্র বাহিনী ও আধুনিক সমরশক্তি প্রয়োগ করবো।

পুতিনের ওই বক্তব্যের ব্যাপারে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখায় ওয়াশিংটন। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেন, কেউ আর শীতল যুদ্ধের অবস্থায় ফিরে যেতে চায় না।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর সাম্প্রতিক সময়ে ইউক্রেন সংকটকে কেন্দ্র করে আমেরিকা ও রাশিয়ার সম্পর্ক সবচেয়ে উত্তেজনাকর অবস্থায় রয়েছে। মার্কিন সরকার পূর্ব ইউরোপে ন্যাটো জোটের সদস্য দেশগুলোতে ভারী অস্ত্র ও যন্ত্রপাতি বসানোর যে পরিকল্পনা করেছে রাশিয়া সে ব্যাপারে কঠোর প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট রাশিয়ার সীমান্তে চলে এসেছে।

You Might Also Like