নতুন গ্রহের আবিস্কারক ১৫ বছর বয়সের কিশোর!

নতুন গ্রহের আবিস্কারক মাত্র ১৫ বছর বয়সের কিশোর! শুনে অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্যি। ইংল্যান্ডের কিল বিশ্বদ্যালয়ের ইন্টার্ন স্টুডেন্ট টম ওয়্যাগ মাত্র ১৫ বছর বয়সেই নতুন গ্রহ আবিস্কার করে শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার বাংলা সংস্করণের খবরে বলা হয়েছে, কিশোর টম ওয়্যাগ নতুন গ্রহটি আবিস্কার করেছিল দুই বছর আগে। এতদিন বিষয়টিকে যাচাই করে তার আবিস্কারকে সম্প্রতি স্বীকৃতি দিয়েছে জিনিভা ও লিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। মাপ ও ভরের প্রয়োজনীয় মানদণ্ড বজায় থাকার কারণে ভিন্ন সৌরমণ্ডলের অনামী চরিত্রটিকে গ্রহ পর্যায়ভুক্ত করা হয়েছে।

এ ঘটনায় উচ্ছ্বসিত কিশোর টম ওয়্যাগ জানিয়েছে, ‘নতুন গ্রহ খুঁজে পাওয়ায় আমি খুবই উত্তেজিত। এত দূরের একটা গ্রহ খুঁজে পাওয়াটা সত্যিই আনন্দের।’

জানা গেছে, কিল বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ম অভিজ্ঞতা অর্জনের ক্লাসে ডব্লিউএএসপি প্রকল্প (ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সার্চ ফর প্ল্যানেটস) থেকে পাওয়া সমস্ত তথ্য তল্লাশি করেই নতুন গ্রহের খোঁজ পায় টম ওয়্যাগ। রাতের আকাশে লক্ষ-কোটি তারা, গ্রহ, উপগ্রহ ও অন্যান্য মহাজাগতিক চরিত্র স্ক্যান করে থাকে ডব্লিউএএসপি। সেই ছবি খুঁটিয়ে পরীক্ষা করতে গিয়ে টম দেখে, প্রায় ১০০০ আলোকবর্ষ দূরত্বের এক নক্ষত্রের আলো সেকেন্ডের কয়েক হাজার ভগ্নাংশ সময়ের জন্য স্তিমিত হচ্ছে। অর্থাৎ তারার আলো আড়াল করেছে তার সামনে চলমান কোনো বস্তু। লক্ষণ দেখে গ্রহের অস্তিত্বের সম্ভাবনা সম্পর্কে সন্দিহান হয় টম ওয়্যাগ। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এর আগে আর কারো চোখে বিষয়টি ধরা পড়েনি।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, টম ওয়্যাগের আবিষ্কৃত গ্রহটির মাপ বৃহস্পতির কাছাকাছি। মাত্র ২ দিনে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রস্থ নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করে এই গ্রহ। আপাতত অনামী গ্রহটিকে ‘ডব্লিএএসপি-১৪২বি’ নামে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে গ্রহটির নামকরণে খুব শিগগির একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে চলেছে কিল বিশ্ববিদ্যালয়।

You Might Also Like