বেনাপোলে স্বর্ণের বারসহ পাসপোর্টধারী দুই যাত্রী আটক

বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যান্সল্যান্ডে ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমস গোয়েন্দারা অভিযান চালিয়ে ৪৬টি স্বর্ণের বারসহ দুই পাসপোর্টধারী যাত্রীকে আটক করেছে।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস হয়ে ভারতে প্রবেশ করার সময় তাদের আটক করা হয়। আটকদের নামপরিচয় জানা যায়নি।

জানা গেছে, ঢাকা এয়ারপোর্ট হয়ে পাসপোর্ট যাত্রী বিকেলে বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস হাউজে যান। সেখানে বিশেষ পরিচয় দিয়ে ভিআইপি মর্যাদায় ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস পার হন। কিন্তু ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষের কাছে ওই দুই যাত্রীর বিরুদ্ধে স্বর্ণ পাচারের তথ্য থাকায় পেট্রাপোল কাস্টমসে প্রবেশের সময় গোয়েন্দা সদস্যরা তাদের দু’জনকে আটক করে।

এরপর তাকে কাছেথাকা একটি টেলিফোন সেট ও পায়ের জুতার মধ্য থেকে ৪৬টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত স্বর্নের বাড়ের ওজন চার কেজি ৬শ গ্রাম।

বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস সুপার উত্তম কুমার বলেন, পরীক্ষা যন্ত্রটি দীর্ঘদিন ধরে অচল রয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানোর পরেও তা ঠিক হয়নি। একারণে সব ব্যাগ পরীক্ষা করা সম্ভব হয় না।

তবে অভিযোগ রয়েছে, বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমসে ব্যাগেজ তল্লশির জন্য ২টি স্ক্যানিং মেশিন রয়েছে। ওই মেশিনগুলো কখনো ব্যবহার করেন না কাস্টম কর্তৃপক্ষ। ফলে অনায়াসে এদেশ থেকে পাচার হচ্ছে স্বর্ণসহ বিভিন্ন মূল্যবান সামগ্রী। এর আগে একইভাবে বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস পার হওয়ার পর ভারতে প্রবেশ সময় ৭৬টি স্বর্ণের বারসহ ৩ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী ওপারে আটক হয়। এরপরও কর্তৃপক্ষের টনক নড়ছে না।

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট কাস্টমস হাউজের সহকারী কমিশনার ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, নতুন স্ক্যানিং মেশিন কেনার জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করা হয়েছে। আর স্বর্ন উদ্ধারের ঘটনার পর থেকে চেকপোস্ট কাস্টমসে কর্মরত সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে।

You Might Also Like