সুপ্রিম কোর্ট বারে বিএনপি-জামায়াতের নিরঙ্কুশ বিজয়

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ২০১৪-১৫ কার্যবর্ষের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় পেয়েছে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল। ১৪ পদের মধ্যে সভাপতি-সম্পাদকসহ ১৩ পদেই বিজয় পেয়েছে ওই প্যানেল। অন্যদিকে, মাত্র একটি সদস্য পদে বিজয়ী হয়েছে আওয়ামী পন্থী প্যানেল থেকে।

দু’দিনব্যাপী ভোটগ্রহণ শেষে শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে শুরু হয় ভোট গণনা।

সর্বশেষপ্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী সভাপতি পদে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন এক হাজার ৫৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ সমর্থিত প্রার্থী ও সাবেক আইনমন্ত্রী এডভোকেট আবদুল মতিন খসরু পেয়েছেন এক হাজার ৪৭৫ ভোট।

সম্পাদক পদে বিএনপিপন্থী মাহবুবউদ্দিন খোকন এক হাজার ৬২৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীপন্থী রবিউল আলম বুদু পেয়েছেন এক হাজার ৪২৯ ভোট।

বিএনপিপন্থী প্যানেলের সহ-সভাপতি প্রার্থী মো. খালেদ আহমেদ এক হাজার ৫৮০ ও রফিকুল ইসলাম মেহেদি এক হাজার ৫৩০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। অপরদিকে, আওয়ামী প্যানেলের সহ-সভাপতি প্রার্থী আবুল খায়ের এক হাজার ৪২০ ভোট ও হোসনেয়ারা বেগম এক হাজার ২৭৪ ভোট পেয়েছেন।

সহ-সম্পাদক পদে বিএনপিপন্থী প্যানেলের একেএম রেজাউল করিম খন্দকার এক হাজার ৪৫৫ ও নাসরিন আক্তার এক হাজার ২৪১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

কোষাধ্যক্ষ পদে বিএনপি পন্থী মাসুদ আহমেদ সাইদ এক হাজার ৬৮৮ পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর আওয়ামী পন্থী মো. আমির হোসেন পেয়েছেন এক হাজার ২৪১ ভোট।

এছাড়া সদস্য পদে বিএনপি জোট সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থী আফসানা রশিদ শুভ্রা এক হাজার ৭৫৬ ভোট, মো. আসাদুজ্জামান আনসারী এক হাজার ৪৩৩ ভোট, মো. মোস্তফা কামাল এক হাজার ৪৪০ ভোট, মোহাম্মদ আইয়ুব আলী আশরাফি এক হাজার ৪৯৭ ভোট, সালমা বেগম এক হাজার ৪৫৩ ভোট ও শামীমা আক্তার বানু এক হাজার ৫০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে, আওয়ামী প্যানেল থেকে সদস্য পদে আবুল কালাম আযাদ এক হাজার ৪৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

এছাড়া আওয়ামী প্যানেলের সদস্য পদের প্রার্থী একেএম দাউদুর রহমান মিনা এক হাজার ৪৩৭ ভোট, অমিত দাশগুপ্ত এক হাজার ৪১৯ ভোট, গুলশানা বিনতে জামান এক হাজার ২৬৩ ভোট, মো. আব্দুল আজিজ মিয়া (মিন্টু) এক হাজার ২৫১ ভোট, মো. নওশের আলী মোল্লা এক হাজার ৪৩৫ ভোট এবং সালমা হাই টুনি এক হাজার ২৮৩ ভোট পেয়েছেন।

নির্বাচন উপ-কমিটির তথ্যানুযায়ী, সমিতির চার হাজার ৫৪ জন ভোটারের মধ্যে এবার তিন হাজার ১৪৩ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।

You Might Also Like