নিউ ইয়র্কে বিস্ফোরণে দু’টি ভবন বিধ্বস্ত ২জন নিহত

নিউইয়র্ক শহরের একটি এ্যাপার্টমেন্টে বিস্ফোরণে ২ নারী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ২০ জনেরও বেশী মানুষ। সিটি মেয়র ডি ব্লাসিও বলেছেন বুধবার ঐ দুর্ঘটনার পর থেকে বেশ কিছু মানুষ নিখোঁজ রয়েছে।

হঠাৎ ভয়াবহ বিস্ফোরণ। সঙ্গে সঙ্গে আগুন। মুহূর্তে আগুন আর ধোয়ায় আকাশ কালো হয়ে যায়। কিছু বুঝে উঠার আগেই একে একে দুটি ভবন মাটির সঙ্গে মিশে গেছে নিউ ইয়র্কের ম্যানহ্যাটানে। এতে নিহত হয়েছেন কমপক্ষে দু’জন। মারাত্মক আশঙ্কাজনক অবস্থায় একটি শিশুকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। নিহত দু’জনই নারী। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৮ জন। গতকাল স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে ম্যানহ্যাটানের ইস্ট হারলেম নামক স্থানে। বিভিন্ন খবরে বলা হয়, ভবন দুটি ৪ বা ৫ তলা বিশিষ্ট। ঘটনার সময় পুরো ম্যানহ্যাটানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সন্ত্রাসী হামলার আতঙ্কে মানুষ দিগ্বিদিক ছুটোছুটি করতে থাকে। ভবন ধসে পড়ার পরও তাতে আগুন জ্বলতে থাকে। দূর থেকে নিউ ইয়র্কের আকাশে দেখা যায় কালো ধোঁয়া। আশপাশের ভবনগুলোতে তখন সৃষ্টি হয় এক অস্থিরতা। লোকজন বাসাবাড়ি ছেড়ে রাস্তায় এসে আশ্রয় নেয়। অনেকে বলেছেন, ওই দুটি ভবন ধসে পড়ার সময় যেন পুরো ম্যানহ্যাটান কেঁপে ওঠে। এতে আতঙ্ক আরও বৃদ্ধি পায়। বিভিন্ন ভবনের শেলফ থেকে জিনিসপত্র পড়ে যেতে থাকে। তবে নিউ ইয়র্ক সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাসিও বলেছেন, গ্যাস লিক থেকে ওই বিস্ফোরণ ঘটেছে। এর মাত্র ১৫ মিনিট আগে সকাল ৯টা ১৫ মিনিটের সময় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে গ্যাস লিক হওয়ার বিষয়ে জানানো হয়। অগ্নিনির্বাপনকারী ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের লোকজন ঘটনাস্থলে আসার আগেই ভবনে আগুন ধরে যায়। তিনি আরও বলেছেন, যারা নিখোঁজ আছেন তাদের সম্পর্কে তথ্য তালাস করা হবে। আগুন নিভে যাওয়ার পরেই ধসে পড়া ভবনে চালানো হবে উদ্ধার অভিযান। ভবন দুটি ছিল আবাসিক। ফলে তার ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেক মানুষ আটকা পড়ে আছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে গত রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আটকে পড়া মানুষের সংখ্যা বা নিহতের সর্বশেষ সংখ্যা কত তা স্পষ্টভাবে জানা যায় নি। আড়াই শতাধিক অগ্নিনির্বাপণকারী ১১৬ তম স্ট্রিট ও পার্ক এভিনিউয়ে এ ঘটনায় আগুন নিয়ন্ত্রণে অংশ নেয়। ভবনটি বিস্ফোরিত হয়ে আশপাশের রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে ধ্বংসাবশেষ। সৃষ্ট পরিস্থিতিতে গ্রান্ড সেন্ট্রাল টার্মিনালের সব রেল যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়। ঘটনাস্থলে সংক্ষিপ্ত এক সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র বিল ডি ব্লাসিও। তিনি বলেন, বড় ধরনের বিস্ফোরণে দুটি ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। এতে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আশপাশের অবকাঠামোর। তখনও অনেক মানুষ নিখোঁজ ছিলেন। মেয়র বলেছেন, নিখোঁজ ব্যক্তিরা কে কোথায় আছেন সে খোঁজ চলছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, বিস্ফোরণের সময় আশপাশের রাস্তায় জানালার কাছ ভেঙে এসে পড়েছে। এ সময় এক ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সারা এলাকা ধোঁয়ায় ঢেকে যাওয়ায় কর্তৃপক্ষ লোকজনের মাঝে মুখোশ বিলি করেছে। প্রত্যক্ষদর্শী শেন কেনেডি বলেছেন, তিনি তীব্র একটি বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন। রেল লাইনের প্লাটফরমে অবস্থান করছিলেন ড্যান স্কারভিনো। তিনি দেখতে পান হঠাৎ করেই আকাশ ছেয়ে গেছে ধোঁয়ায়। তিনি বলেন, আমি এর আগে এমন ঘটনা আর কখনও দেখি নি। অ্যাশলে রিভেরা বলেন, আমরা দেখতে পাই মানুষ জানালা দিয়ে পালাচ্ছে। তারা বাঁচার আপ্রাণ চেষ্টা করছে।

You Might Also Like