জিডিপির লক্ষ্যমাত্রা ৭ শতাংশ

২০১৫-১৬ অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ শতাংশ। এছাড়া, মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৬ দশমিক ২ শতাংশ।

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে ২০১৪-১৫ সালের সম্পূরক ও ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ তথ্য দেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে জাতীয় সংসদে বাজেট বক্তৃতা শুরু করেন অর্থমন্ত্রী। দশম জাতীয় সংসদে এটি তার দ্বিতীয় বাজেট।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের ধ্বংসাত্মক কর্মকা-ের কারণে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারি না। দেশে জ্বালাও পোড়াও না হলে জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ ছাড়িয়ে যেত। তার পরও বিশ্বের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনকারী দেশের মধ্যে আমরা অন্যতম।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি শতাধিক মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। এসএসসি পরীক্ষার্থীরা সঠিকভাবে পরীক্ষা দিতে পারেনি। এছাড়া বৈশ্বিক অর্থনীতির শ্লথ গতি থাকা সত্ত্বেও দেশে অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা কৃষি ও শিল্প খাতে অনেক ভালো কিছু অর্জন করেছি। দেশে বিদ্যুৎ ও খাদ্য উৎপাদন বেড়েছে। শিক্ষাখাতেও অনেক অগ্রগতি হয়েছে।

মুহিত আরও বলেন, বর্তমানে আমাদের মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৩১৪ মার্কিন ডলার। আশা করছি ২০১৮ সালে দেশ থেকে অতিদরিদ্র বিতাড়িত করবো। বর্তমানে আমাদের গড় আয়ু ৭০ দশমিক ৭ বছর। এখন আমাদের রিজার্ভ রয়েছে ২৩ দশমিক ৭ শতাংশ।

২০১৪-১৫ অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৬ দশমিক ৫১ ভাগ। জিডিপির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিলো ৭ দশমিক ২ শতাংশ। এবার জিডিপির লক্ষ্যমাত্রা গত অর্থবছরের তুলনায় কম নির্ধারণ করা হলো।

You Might Also Like