ছাত্রলীগ কর্মীর হাত কেটে দিলো ছাত্রলীগ কর্মী

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের এক কর্মীর হাত কেটে নিয়েছেন প্রতিপক্ষের কর্মীরা। সৌরভ হোসেন ওরফে টুলটুলি (২০) নামের ওই ছাত্রলীগ কর্মীর বাম হাত কনুই থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।
দুই পক্ষের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের জের ধরে আজ সোমবার বিকেলে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সৌরভকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সৌরভ পাকশীর রূপপুর গ্রামের তুহিন হোসেনের ছেলে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রূপপুর মোড়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কয়েক দিন ধরে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সদরুল আলম পিন্টুর সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক মিরাজ হাসানের দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জের ধরে গতকাল রোববার বিকেলে পিন্টুর পক্ষের কর্মী মিজানকে রূপপুর মোড়ে মারধর করে মিরাজের পক্ষের সৌরভ। এ নিয়ে আজ সারাদিন দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।
পুলিশের ভাষ্য, বিকেল সাড়ে চারটার দিকে পাকশী পেপার মিলের সামনে সৌরভকে দেখতে পেয়ে পিন্টুর পক্ষের কর্মীরা হামলা চালান। তাঁরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে সৌরভকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। ধারালো অস্ত্রের কোপে সৌরভের বাম হাত কনুই থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশের সহযোগিতায় ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন।
ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিমান কুমার দাশ বলেন, ঘটনার পরপরই এলাকায় সার্বক্ষণিক পুলিশ টহল বাড়ানো হয়েছে। তবে এই ঘটনায় এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।
সৌরভের মামা রুবেল হোসেন দোষীদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন।
মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পাওয়া যায়নি। তবে মুঠোফোনে পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সময় তিনি এলাকায় ছিলেন না। এর সঙ্গে ছাত্রলীগের দুইটি পক্ষ জড়িত কি না তাও তিনি জানেন না।

You Might Also Like