নেভারল্যান্ড ব্যাঞ্চ-এ মাইকেল জ্যাকসনের ‘ভূত’!

সংগীত কিংবদন্তি মাইকেল জ্যাকসন মারা গেছেন ২০০৯ সালে। কিন্তু এখনো নাকি তার বাড়িতে ভূত হয়ে ঘোরেন এ পপ তারকা। সম্প্রতি এমনি গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে জ্যাকসনের প্রিয় সম্পত্তি ও বাসস্থান ‘নেভারল্যান্ড ব্যাঞ্চ’ কে ঘিরে। এ নিয়ে বিক্রি সমস্যাতে ভুগছেন বর্তমানে এ সম্পত্তির মালিকানাধীন ব্যক্তিরা।

কারণ মাইকেল জ্যাকসনের সম্পত্তি কিনতে আগ্রহী ব্যক্তিরা এখন পিছিয়ে আসছেন। এক মার্কিন শিল্পপতি প্রায় কিনেই ফেলেছিলেন মাইকেল জ্যাকসনের সম্পত্তি ও বাসস্থান। কিন্তু এলাকার স্থানীয় মানুষদের কথা শুনে পিছিয়ে আসেন সেই শিল্পপতি। কারণ আর কিছুই নয় ভূতের ভয়।

শোনা গিয়েছে স্থানীয় মানুষরা নাকি ‘নেভারল্যান্ড ব্যাঞ্চ’-এখনও মাইকেল জ্যাকসানের আত্মা দেখতে পান। মাইকেল জ্যাকশনের বাড়ির উল্টোদিকে বাস করা এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, মৃত্যুর পরে মাইকেল এখনো ওই বাড়িতে ভূত হয়ে ঘোরে। মাঝেমাঝেই রাতে নাকি জ্যাকসনের ঘর থেকে অদ্ভূত আওয়াজ আসে। এক মার্কিন ওয়েবসাইট আবার জানিয়েছে, সিসিটিভি ফুটেজে নাকি মৃত্যুর পরেও মাইকেল জ্যাকসনের ছায়া দেখা গিয়েছে।

পপ-সম্রাট বেঁচে থাকতেই কার্যত হাতছাড়া হয়েছিল এই সম্পত্তিটি। ২০০৮ সালে ঋণগ্রস্থ মাইকেলের কাছ থেকে প্রায় দু’কোটি ৩৫ লক্ষ ডলারের বিনিময়ে নেভারল্যান্ড দখলে নেয় ‘কলোনি ক্যাপিটাল’। তখন থেকেই এর দেখাশোনা করার জন্য প্রতি বছর সংস্থাটির খরচ হচ্ছে প্রায় ৫০ লক্ষ ডলার।

১৯৯৮ সালে গলফ কোর্স নির্মাতা উইলিয়াম বোনের কাছ থেকে জমি এবং বাড়িটি কেনেন মাইকেল জ্যাকসন। এখানে রয়েছে দুটি হ্রদ, বিভিন্ন রাইড, চিড়িয়াখানা, খুদে ট্রেন, ছোট জাহাজ, সিনেমাহল, বিচিত্র খেলাধুলার আয়োজন সহ অনেক কিছু। প্রায় ১০ কোটি ডলারে বিক্রি হতে পারে পপ সম্রাটের এই বাসস্থান।

You Might Also Like