গাছের মাধ্যমে হীরা খনির সন্ধান!

সমগ্র বিশ্বজুড়ে যখন হীরার খনি খোঁজ করতে ব্যস্ত। তখন খনি খোঁজ পাওয়াটা আরো সহজ হয়ে গেল। কেননা প্রকৃতির এই মূল্যবান খনিজ সম্পদের খোঁজ পেতে সাহায্য করবে এক ধরনের গাছ। হীরার খনির আশপাশেই জন্মায় এগুলো।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ড. স্টিফেন হ্যাগার্টি সর্বপ্রথম ওই গাছ চিহ্নিত করেন। পামগাছের মতো দেখতে কাঁটাওয়ালা এই গাছের বৈজ্ঞানিক নাম Pandanus candelabrum। ড. হ্যাগার্টি জানান, হীরার জন্ম হয় মাটির কয়েক শ ফুট গভীরে। হীরক- আরো ওপর দিকে উঠে আসে কিম্বারলাইট নামে এক ধরনের আগ্নেয় শিলার স্তর আশ্রয় করে। এগুলোকে বলা হয় কিম্বারলাইট পাইপ।

দেখা গেছে, কিম্বারলাইটসমৃদ্ধ মাটিতেই কেবল জন্ম নেয় ওই বিশেষ উদ্ভিদ। কিম্বারলাইটে যে ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম, ফসফরাস থাকে সেগুলো থেকেই পুষ্টি গ্রহণ করে ওই উদ্ভিদকুল। পৃথিবীর অন্য কোথাও এ ধরনের উদ্ভিদের দেখা পাওয়া যায় না বলে দাবি করেছেন ড. হ্যাগার্টি। তার দাবি সত্য হলে হীরার খনির খোঁজ পেতে আগে যতটা সময় আর অর্থ ব্যয় করতে হতো, সেখান থেকে রেহাই মিলবে। Pandanus candelabrum-সংলগ্ন এলাকায় খোঁড়াখুঁড়ি করেই পাওয়া যেতে পারে আর্থিক আর বৈজ্ঞানিক উভয় সূত্রে মূল্যবান হীরার সন্ধান। সূত্র : ডেইলি মেইল।

You Might Also Like