সুন্দরী মডেলের এ কী হাল! (ভিডিও)

বর্তমান সময়ে ডায়েট শব্দটির সঙ্গে আমরা সবাই পরিচিত। বিশেষ করে, হলিউড-বলিউডের জিরো ফিগার দেখে ফ্যাশন-প্রেমীরা ডায়েটের প্রতি ঝুঁকছেন। তবে এরও রয়েছে ক্ষতিকর দিক। তার জীবন্ত প্রমাণ মডেল রাচায়েল ফারক। জিরো ফিগার বানাতে গিয়ে উল্টো তিনি আক্রান্ত হয়েছেন অ্যানোরেক্সিয়া নামক মরণ-ব্যাধি ক্যানসারে। ১০ বছর ধরে এ রোগে ভুগছেন প্রাক্তন এ মডেল।

৩৭ বছর বয়সি মডেল রাচায়েল ফারকের ওজন এখন মাত্র ১৮ কেজি। তিনি দেখতে যেন এক জীবন্ত কঙ্কাল। ধীরে ধীরে ঢলে পড়ছেন মৃত্যুর কোলে। তবে জীবনের শেষ আশা ছাড়তে চান না রাচায়েল। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার শেষ আর্তি, ‘আমি বেঁচে থাকতে চাই। আমাকে সাহায্য করো।’

download

র‌্যাম্প মাতানোর নেশায় শরীরে সব মেদ ঝেড়ে ফেলতে ফারকে শুরু করেছিলেন ডায়েট। আর এটাই হলো তার কাল। না খেতে খেতে আজ রাচায়েল অস্থি-চর্মসার এক জীবন্ত লাশ। দিনের পর দিন অনাহারে থাকতে থাকতে আজ চাইলেও মুখে কিছুই তুলতে পারছে না ফারকে। শরীরের ওজন এতটাই কম যে নূন্যতম চিকিৎসার ধকল নেওয়ার পর শক্তি নেই তার শরীরে। যে কারণে দেশের কোনো হাসপাতাল ভর্তি নিতে চাইছে না তাকে। ডাক্তারদের কথায়, না খেয়ে রাচায়েলেত কিডনি, লিভার প্রায় নষ্ট হয়ে গিয়েছে। হার্টের অবস্থাও শোচনীয়। যেকোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে তার হৃৎস্পম্দন।

একসময় শোবিজ মাতানো এই মডেল আজ দিন গুনছেন শেষ সময়ের। র‌্যাম্পে হাঁটা তো দূরের কথা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারেন না তিনি। শুতে গেলে হাড় বিঁধে শরীরে শুরু হয় অসহ্য যন্ত্রণা। মুখে কিছু দিলেই বমি। তবে এখন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইছেন রাচায়েল। আর তার জন্য দরকার বিপুল অর্থ। আর এই খরচ জোগাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় সাহায্যের আবেদনের পাশাপাশি Gofundme বলে একটি পেজও তৈরি করেছেন বাচায়েল ও তার স্বামী। এই পেজে বিশ্ববাসীর কাছে তাদের আর্জি, ‘তারা যেন কিছু অর্থ সাহায্য করে, যাতে অন্তত রাচায়েলের জীবনটা বাঁচে।’

তবে এটাই প্রথম, এমন নয়। এর আগেও বহু মডেল ও অভিনেত্রীরা অ্যানোরেক্সিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। কেউ কেউ কোনোমতে বেঁচে আছেন। আপনাদের জানিয়ে রাখি, ২০১৩ সালে অ্যানোরেক্সিয়াতে মৃত্যু হয়েছে ৬০০ জনের।

কিন্তু অ্যানোরেক্সিয়া কী? এটি হচ্ছে ইটিং ডিজঅর্ডার। চিকিৎসার পরিভাষায় এই রোগের পুরো নাম অ্যানোরেক্সিয়া নার্ভোসা। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, অতিমাত্রায় ডায়েট থেকেই এই রোগ হয়। ডায়েট করতে করতে একসময় মানসিকভাবেই এমন এক পর্যায় আসে, তখন আর কিছুই খেতে ইচ্ছা করে না। খিদেও পায় না। শুকিয়ে যায় খাদ্যনালি।

দেখুন : বিশ্ববাসীর কাছে রাচায়েলের আকুতি

 

You Might Also Like