ক্ষেত্রবিশেষে হিজাব পরা যাবে নেদারল্যান্ডসে

ক্ষেত্রবিশেষে ইসলামি পর্দা হিসেবে ব্যবহৃত হিজাব পরা যাবে ইউরোপের দেশ নেদারল্যান্ডসে। তবে সরকারি প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও গণপরিবহণে হিজাব পরা যাবে না।

ডাচ পার্লামেন্টে শুক্রবার এ-সংক্রান্ত বিল পাস হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে সাংবাদিকদের বলেন, রাস্তায় হিজাব পরা নিষিদ্ধ নয়। কিন্তু বিশেষ অবস্থায় যেখানে মুখ দেওখার প্রয়োজন হয় অথবা নিরাপত্তার জন্য দরকার হয়, সেখানে হিজাব নিষিদ্ধ।

তিনি আরো বলেন, ‘জনগণের পোশাক পরার স্বাধীনতা এবং পারস্পরিক যোগাযোগের গুরুত্বের মধ্যে সমন্বয় আনার চেষ্টা করছে সরকার।’

মার্ক রুটে আরো বলেন, ‘এই বিলের উদ্যোক্তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রোলান্ড প্লাসটের্ক। কিন্তু ধর্মের দিক থেকে তার কোনো ভিত্তি নেই।’

মার্ক রুটের আগের সরকারের সময় ঘোমটা পরায় পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ওই বিলের উদ্যোক্ততা ছিলেন ইসলামবিরোধী কর্মী গ্রিট উইল্ডার্স। কিন্তু নতুন বিল পাসের ফলে আগের আইন বাতিল হয়ে যাবে। ফলে হিজাব পরায় কিছুটা স্বাধীনতা পাবে নেদারল্যান্ডসের মুসলিম নারীরা।

সরকারনির্ধারিত স্থানগুলোতে হিজাব বা ঘোমটা পরলে ৪০৫ ইউরোর বেশি পরিমাণে জরিমানা করবে কর্তৃপক্ষ।

নেদারল্যান্ডসের সরকারি হিসাব মতে, ১০০ থেকে ৫০০ নারী বোরখা পরে। এদিকে প্রতিবেশী দেশ ফ্রান্স ও বেলজিয়ামে হিজাব পরা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

তথ্যসূত্র : আলজাজিরা অনলাইন।

You Might Also Like