পুলিশ হেফাজতে নবাগত নায়িকা মুনিয়া

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সিনেমার শুটিং করতে এসে গেট দিয়ে প্রবেশের সময় পরিচয় চাওয়ার কারণে কর্তব্যরত আনসারদেরকে নায়িকার সহকারী নজরুল রিভালবার বুকে ঠেকিয়ে দাপট দেখিয়ে চলে যান। পরে সহকারীকে পাওয়া না গেলে রিভলবার দেখানো এবং আনসারদের কাজে বিঘ্ন ঘটানোর অভিযোগে নায়িকাকে পুলিশে হস্তান্তর করেছে শেকৃবি প্রশাসন।

প্রতক্ষ্যদর্শী ও আনসার সূত্রে, শুক্রবার দুপুরে এসএস মাল্টিমিডিয়ার গ্রুপ প্রযোজিত ও অনন্য মামুন পরিচালিত বাংলা ছায়াছবি ‘ভালবাসার গল্প‘ এর শুটিংয়ে আসেন একটি শুটিং ইউনিট। শুটিং ইউনিটের আসার কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রাইভেট কার যোগে নির্বাচন কমিশন সংলগ্ন শেকৃবির দ্বিতীয় গেট দিয়ে সিনেমার নায়িকা মুনিয়া আফরিন শেকৃবিতে ঢোকার সময় গেটে কর্তব্যরত আনসার আব্দুস সাত্তার ও সুমন চন্দ্র দেব গাড়িটি আটকিয়ে তাদেরকে জিজ্ঞেস করলে নায়িকার সহকারী পরিচয় না দিয়ে কর্তব্যরত আনসারদের সাথে খারাপ আচরণ শুরু করে। কিন্তু আনসারদের অনড় অবস্থান দেখে তিনি এন্ট্রি খাতায় এন্টি করেন।

পরবর্তিতে কোথায় যাবেন এই প্রশ্নের কোন উত্তর না দিয়েই গাড়ি চালিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে ঢুকে যান। নায়িকাকে স্পটে রেখে গাড়ী নিয়ে গেট দিয়ে বের হয়ে যাবার সময় নজরুল কর্তব্যরত আনসারদেরকে রিভালবার বুকে ঠেকিয়ে ভয় দেখিয়ে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে আবার গাড়িতে উঠে চলে যায়।

আনসাররা ব্যাপারটি শেকৃবি প্রশাসনকে জানালে শুটিংয়ে থাকা নায়িকাসহ ইউনিটের আরও ৪ জনকে প্রক্টর অফিসে বসিয়ে রাখা হয় এবং মোবাইলে নজরুলকে আসতে বলা হয়। ৩ ঘন্টা পরেও নজরুল না আসলে থানায় খবর দিয়ে নায়িকা মুনিয়া আফরিনকে শেরেবাংলা নগর থানার তত্তাবধায়নে দিয়ে দেয়া হয়।

এই ব্যাপারে শেকৃবির প্রক্টর ড. মো. মিজানুর রহমান সংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন ঘটনা এই প্রথম। কর্তব্যরত আনসারদেরকে কর্তব্য পালন করে অবস্থায় রিভালবার দেখানো অনেক ঘৃণিত একটি কাজ। ক্যাম্পাসের পক্ষ থেকে একটি জিডি করা হবে।’

You Might Also Like