স্ত্রী ছিলেন লাদেনের ‘চোখের মণি’

নিউ ইয়র্ক: “তুমি আমার চোখের মণি। পৃথিবীতে যা আমি কিছু পেয়েছি, এর মধ্যে তুমিই সবচেয়ে দামি।”—আল-কায়েদান প্রধান ওসামা বিন লাদেন তার এক স্ত্রীকে এসব কথা বলেছিলেন। এ ছাড়া নিজের মৃত্যুর পর স্ত্রীর দ্বিতীয় বিয়েতে আপত্তি নেই বলেও জানান তিনি।
২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে যে বাড়িতে লাদেন মারা পড়েন, সে বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া ১০৩টি চিঠি, ভিডিও ও বেশ কিছু নথি জনসমক্ষে প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় গোয়েন্দা অধিদপ্তরের পরিচালকের কার্যালয় (ওডিএনআই)। বুধবার এগুলো প্রকাশ করা হয়। সেখানে পাওয়া একটি ভিডিওচিত্রে এভাবেই স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার কথা প্রকাশ করতে দেখা যায় আল-কায়েদার সাবেক এ প্রধানকে।
ভিডিওটিতে মৃত্যুর পর স্ত্রীকে আবার পাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করতে দেখা যায় লাদেনকে। স্ত্রীকে উদ্দেশ করে লাদেন বলেন, “বেহেশতেও আমি তোমাকে স্ত্রী হিসেবে পেতে চাই।” তবে লাদেন স্ত্রীকে এটিও মনে করিয়ে দেন, কোনো স্ত্রী দ্বিতীয়বার বিয়ে করলে শেষ বিচারের দিন যেকোনো একজনকে বেছে নেয়ার সুযোগ থাকে।
ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া অন্য কাগজপত্র ও চিঠিতে ব্যক্তি লাদেনের যে চিত্র পাওয়া যায়, তাতে লাদেনকে নিজের অনুসারীদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন, ব্যর্থতায় হতাশাগ্রস্ত একজন নেতা হিসেবে দেখা যায়।
এ ছাড়া বেশ কিছু বার্তায় দেখা যায়, লাদেন সৃষ্টিকর্তার নামে মার্কিন, ব্রিটিশ ও ইহুদিদের হত্যার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তা ছাড়া নিজেদের মধ্য দ্বন্দ্ব নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন ছিলেন তিনি। নিজের অনুসারীদের অন্তর্দ্বন্দ্বে জড়িয়ে না পড়ারও আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি।

You Might Also Like