টিআইবি রিপোর্ট খতিয়ে দেখা হবে: সিইসি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দিন আহমদ বলেছেন, তিন সিটি নির্বাচন নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) রিপোর্ট খতিয়ে দেখা হবে। তিনি বলেন, নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যয় সংক্রান্ত রিপোর্ট হাতে পেলে যাচাই-বাছাই করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে সিইসি এ কথা বলেন। মাগুরা-১ আসনের উপ-নির্বাচন উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সিটি নির্বাচনে ২১ গুণ পর্যন্ত বেশি ব্যয় করা হয়েছে মর্মে টিআইবি যে তথ্য প্রকাশ করেছে সে ব্যাপারে সিইসি বলেন, নিশ্চয় আমরা প্রার্থীদের ব্যয়ের হিসাব নেই। ইতোমধ্যে নির্বাচনী ব্যয় জমা দিতে চিঠি দিয়েছি। প্রার্থীদের রিপোর্ট হাতে পেলে আমরা ব্যবস্থা নেব।
সিইসি বলেন, কে কত বেশি খরচ করেছে, প্রার্থীরা হিসাব দিলে বুঝতে পারব। তবে এটা দুরুহ ব্যাপার। কারন সব রিপোর্ট হয়তো সঠিকভাবে হয় না।
সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি, ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ ও টিআইবির অভিমত প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ইলেকশন ওয়ার্কি গ্রুপ নিজেরা কোনো পর্যবেক্ষণ করে না। তাদের সঙ্গে অনেকগুলো নিবন্ধিত সংস্থা রয়েছে। আমরা প্রত্যেক সংস্থাকে পর্যবেক্ষণের অনুমতি দিয়েছি। এদের মধ্যে দুটি সংস্থার রিপোর্ট আমরা পেয়েছি। তারা বলেছে, দু’একটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে।
তিনি বলেন, অন্যান্য বাহিনীর মতো সেনাবাহিনীর টহল দেওয়ার কথা নয়, তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে গেলে তাদের ডাকলে আসত। তবে ডাকার প্রয়োজন পড়েনি।
মাগুরা-১ আসনের উপ-নির্বাচন প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
৩০ মে মাগুরা-১ আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপ-নির্বাচনে ৪ জন প্রতিন্দ্বন্দ্বিতা করছেন।

You Might Also Like