বাকৃবিতে বেতনের দাবিতে প্রশাসনিক ভবনে তালা

বেতন না পেয়ে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) প্রশাসনিক ভবন ও কোষাধ্যক্ষের কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারীরা।

বুধবার দুপুরে প্রশাসনিক ভবন ও কোষাধ্যক্ষের কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছে কর্মচারীরা।

বেতন না দেওয়া হলে আন্দোলন এবং অবরোধ না তোলার ঘোষণা দিয়েছে পেশাজীবী কর্মচারী পরিষদ।

জানা গেছে, সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মরত কর্মচারীরা বিভিন্ন ভবন থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে জড়ো হয়ে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করে। পরে বেলা ১১টার দিকে তারা প্রশাসনিক ভবন ও কোষাধ্যক্ষের কার্যালয়ের ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এ সময় প্রশাসনিক বিভিন্ন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

অবস্থান ধর্মঘট চলাকালে কর্মচারী সমিতির নেতারা বলেন, প্রতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বেতন পাওয়ার কথা থাকলেও আমরা এপ্রিল মাসের বেতন এখনও পাইনি। যার কারণে আমাদের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। অবিলম্বে বেতনভাতা পরিশোধ করা না হলে যেকোনো দাপ্তরিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকবে বলেও ঘোষণা দেয় তারা।

পেশাজীবী কর্মচারী পরিষদের সভাপতি আব্দুল খালেক বলেন, প্রশাসন ও কোষাধ্যক্ষ ভবন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে। আমাদের বেতন না দেয়া পর্যন্ত তালা খোলা হবে না। আমাদের বেতন পরিশোধ করলেই আমরা তালা খুলে ফেলবো।

উল্লেখ্য, ২০ এপ্রিল বেতন ভাতায় উপাচার্যের স্বাক্ষর করার কথা থাকলেও ভিসি না থাকায় ওই ভাতা পাস হয়নি। ফলে বেতন ভাতা তুলতে পারেনি কেউই। এ নিয়ে অবস্থান ধর্মঘট পালন করে আসছে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারীরা।

You Might Also Like