নাটোরে ধর্ষণের পর নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

নাটোরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে ধর্ষণের পর ফাহিমা খাতুন (৩০) নামের এক নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ শরিফ নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। রোববার রাতে সদর থানার তেলকুপি ঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান ও এলাকাবাসী জানান, সদর উপজেলার তেলকুপি ঘাট এলাকার আব্দুর রহিমের সঙ্গে একই এলাকার নয়ন খুলুর ছেলে শরিফ উদ্দিনের জমি নিয়ে পূর্ব থেকে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে রোববার আব্দুর রহিমের সঙ্গে শরিফ উদ্দিনের কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শরিফ উদ্দিন আব্দুর রহিমকে শাসিয়ে যায়।

রাতের কোন এক সময় আব্দুর রহিমের মেয়ে ফাহিমা খাতুনকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

সোমবার সকালে এলাকার লোকজন আব্দুর রহিমের বাড়ির পাশে মাঠে তার মেয়ে ফাহিমা খাতুনের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শরিফ উদ্দিনকে আটক করে।

প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে ফাহিমাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

You Might Also Like