হত্যা মামলার ৪ আসামি কাঠগড়া থেকে পালিয়েছে

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জুবায়ের হত্যা মামলার ৪ আসামি আদালতের কাঠগড়া থেকে পালিয়ে গেছে। গতকাল ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ৪-এ তাদের জামিন নামঞ্জুর হওয়ার পর এ ঘটনা ঘটে। ট্রাইব্যুনাল-৪ বিচারক তাদের জামিন বাতিলের আদেশ দেয়ার পরপরই সেখান থেকে চম্পট দেয় চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার আলোচিত ৪ আসামি। এ সময় আদালতের সামনে কোন পুলিশ ছিল না। আদালত থেকে পালিয়ে যাওয়া আসামিরা হলো খন্দকার আশিকুল ইসলাম আশিক, খান মোহাম্মদ রইছ, মাহবুব আকরাম ও ইসতিয়াক মেহবুব অরূপ। এদিন আরও দুই আসামি মো. রাশেদুল ইসলাম রাজু ও জাহেদুল ইসলামের জামিন বাতিল করা হয়। কিন্তু তারা আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। আসামিদের পলায়ন প্রসঙ্গে ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি এস এম রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, জামিন বাতিলের আদেশ হওয়ার পরপরই আসামিদের কাঠগড়ার নিচে থাকা এটি ফাঁকা জায়গা দিয়ে তারা বেরিয়ে চলে যায়। গতকাল এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। গুলশান থানার তৎকালীন এসআই হুমায়ুন কবির ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্য দেন। জবানবন্দি প্রদানের পর আসামিপক্ষের আইনজীবীরা সাক্ষীকে জেরা করেন। এ নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ হয়েছে। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৭শে ফেব্রুয়ারি তারিখ ধার্য করা হয়েছে। এ মামলায় গত ৮ই সেপ্টেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করা হয়। উলেখ্য, ২০১২ সালের ৮ই জানুয়ারি বিকালে ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী জুবায়ের আহমেদকে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। পরদিন ভোরে রাজধানী একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জুবায়ের। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার হামিদুর রহমান বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসামিদের মধ্যে মাহবুব আকরাম ও নাজমুস সাকিব ওরফে তপু ২০১২ সালের ১৫ই জানুয়ারি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। গত বছরের ৮ই এপ্রিল ঘটনাটি তদন্ত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার এসআই মীর শাহীন শাহ পারভেজ ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

You Might Also Like