কওমি মাদ্রাসায় কোনো জঙ্গি নেই: কামরুল

কওমি মাদ্রাসায় কোনো জঙ্গি নেই বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির উদ্যোগে গণতন্ত্র ও দেশের স্থিতিশীলতা রক্ষার্থে আলেম ওলামাদের ভূমিকা শীর্ষক’ এক আলোচনা সভায় তিনি মন্তব্য করেন।

কামরুল বলেন, কওমি মাদ্রাসার বিরুদ্ধে বিভিন্নজন অভিযোগ করে বলে তারা জঙ্গি। তবে আমি মনে করি বাংলাদেশর কওমি মাদ্রাসায় কোন জঙ্গি নেই। তবে যারা ধরাই পড়েছে তারা অতীতে জামাত-শিবির করেছে । এরা জামাতের মজলিশে সূরার সদস্য। এরা সহ বাংলাদেশে যত গুলো জঙ্গি সংগঠন আছে এদের পৃষ্ঠপোষক হচ্ছে বিএনপি । বিএনপি গনতন্ত্রের আলখেল্লা পড়ে দেশে জঙ্গিবাদ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়। তাদের এই আলখেল্লা ছুড়ে ফেলতে হবে।

হরতাল-অবরোধে নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে প্রত্যেক বিভাগে ট্রাইবুনাল হচ্ছে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, আমরা রাস্তায় কাউকেই দেখিনি, তারা শুধু মানুষ পুড়িয়ে মেরছে. হরতাল-অবরোধের নামে যারা মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে, বার্ন ইউনিটে ভরে ফেলেছে আজেকে সময় এসেছে তাদের বিচার করার। আমরা ধর্ম ভীরু কিন্তু ধর্মান্ধ নই। আমরা ঘৃণা করি মানুষ পোড়ানোকে, গনতন্ত্রে এই ধরণের বিভৎসতা, নৃশংসতার কোন স্থান নেই।

তিনি বলেন, যারা বলে সাঈদিকে চাঁদে দেখা যায় তাদেরর তো মাফ করা যায় না।এদের বিচার করা হবে।

স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম, এখানে জঙ্গিবাদ বা মানুষ পোড়ানোর কোন স্থান নেই। যারা এগুলো করেছে সময় এসেছে এদের বিচার করার।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে অনেক রাজনৈতিক দল আছে যারা বলেন ইসলামে নারী নেত্রত্ব চলে না । অথচ তারাই নারীদের পাশে বসে থাকে।

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন,আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহ-সম্পাদক এম করিম, ইউনাইডেট ইসলামী পার্টির বিভিন্ন শ্রেনীর নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।’

You Might Also Like