ময়মনসিংহে বজ্রপাতে নিহত ৫

ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া, হালুয়াঘাট, ফুলপুর উপজেলায় পৃথক বজ্রপাতে ৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে ও ৬ জন আহত হয়েছে।

জানা গেছে, ধোবাউড়া উপজেলায় বজ্রপাতে ২ স্কুল ছাত্র নিহত ও ৩জন আহত হয়েছে। এরা হচ্ছে ধোবাউড়া সদর ইউনিয়নের বাঘড়া কান্দাপাড়া গ্রামের আতর খানের ছেলে গুজিরকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্র দেলোয়ার হোসেন (১২) ও তার বোন একই স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী রহিমা খাতুন (৯)। প্রতিদিনের মত বারান্দায় বসে পড়ার সময় বজ্রপাতে তারা আহত হয়। ধোবাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দেলোয়ার হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।

আহত রহিমা খাতুন ও একই পরিবারের মোশারফ হোসেনকে (৩২) ধোবাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অন্যদিকে দক্ষিণ মাইজপাড়া ইউনিয়নের চারুয়াপাড়া গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে ভেদীকুড়া জুনিয়র স্কুলের ৭ম শ্রেণির ছাত্র মোশারফ হোসেন (১৪) নিজেদের বাড়িতে ঘরের বারান্দায় বসে পড়ার সময় বজ্রপাতে আহত হয়। তাকে ধোবাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া দক্ষিণ মাইজপাড়া ইউনিয়নের পঞ্চনন্দপুর গ্রামের মৃত কছর আলীর ছেলে হারুন অর রশিদ (৪৫) বজ্রপাতে আহত হন। তাকেও ধোবাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে মোশারফ হোসেন (৩২) ও হারুন অর রশিদকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

হালুয়াঘাটে ধারা ইউনিয়নের পরুড়া পাড়া গ্রামের রুবেল করিম (৩২), বানিয়াকান্দা গ্রামের জমশেদ আলী (৫০) বজ্রপাতে মারা গেছেন এবং ৩ জন আহত হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন আইসিন (১১), নূরজাহান (৪৫), আইমনা (৪৭)। অপরদিকে ফুলপুরের ধানার ভিটা গ্রামে বজ্রপাতে কফিল উদ্দিন (৫৫) নামের এক বাসিন্দা মারা গেছেন।

You Might Also Like