স্টোকহোম  দূতাবাসে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

​জামান সরকার, হেলসিংকি থেকে,  স্টোকহোম বাংলাদেশ দূতাবাস গত ২রা মে বাংলা বর্ষ ১৪২২ বরণ উপলক্ষে  একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের আয়োজন করে। উক্ত অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী প্রবাসীর স্বঃতস্ফূর্ত অংশগ্রহণে দেশজ অনুভূতি ও আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান সূচীতে ছিল রাষ্ট্রদূতের স্বাগত বক্তব্য, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও অনুষ্ঠান শেষে দূতাবাসের পক্ষ থেকে সবার জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্থা।

রাষ্ট্রদূত  মোঃ গোলাম সারোয়ার উপস্থিত সবাইকে বাংলাবর্ষের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে তাঁর স্বাগত বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, বাংলা বর্ষ বরণ সম্পূর্ণ অসম্প্রদায়িক একটি অনুষ্ঠান এবং বাঙ্গালীর শ্বাশত অনুভূতি, জীবনাচরণ, যুগ-যুগের ঐতিহ্য ও বর্ণিল উৎসবই এ অনুষ্ঠানের প্রাণ। বাংলাদেশ ও বাঙ্গালী জাতির ইতিহাস-ঐতিহ্যের প্রতি গভীর অনুভূতিও অনুরাগ লালন ও ধারণ করার উদাত্ত আহবান জানিয়ে নতুন প্রজন্মের মধ্যে তা ছড়িয়ে দেয়ার জন্য তিনি অনুরোধ জানান। বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসক ঐতিহ্য এবং বাংলাদেশের স্বকীয়তা, স্বাতন্ত্র্য ও স্বাজত্যবোধের পটভূমিকায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিস্মরনীয় অবদানের কথা উলেস্নখ করে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত ভিশন-২০২১ এবং ভিশন-২০৪১ বাস্ত্মবায়নের জন্য সবাইকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দূতাবাসের প্রথম সচিব ও চ্যান্সারী প্রধান মোঃ কামরুজ্জামান।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্বে, প্রবাসী অতিথি শিল্পীবৃন্দের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে গান, কবিতা ও নৃত্য পরিবেশন করা হয়। এ ছাড়াও, বাংলা বর্ষবরণের আমেজ ও আবহ সৃষ্টির প্রয়াসে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের সম্মিলিত প্রয়াসে একটি বর্ণিল মঞ্চ-সজ্জা প্রস্তুত করা হয় যা উপস্থিত সূধীবৃন্দ কর্তৃক প্রশংসিত হয়।

উলেস্নখ্য যে, বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রবাসীরা নিজেদের মধ্যে শুভেচ্ছা বিনিময়ের সুযোগে আলাপচারিতায় মেতে ওঠে, এতে আবেগঘন আবহের সৃষ্টি হয়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে সবাইকে দূতাবাসের পক্ষ থেকে আপ্যায়ন করা হয়।

You Might Also Like