লেবাননে বাংলাদেশ দূতাবাসে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট কার্যক্রম শুরু

লেবাননে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হল মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এমআরপি’র কার্যক্রম। বেশ কয়েক মাস ধরে এমআরপি’র কার্যক্রম চালু করার লক্ষ্যে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছিলেন ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম (পিএইচডি) এবং ভারপ্রাপ্ত হেড অফ সেনচারী ও প্রথম সচিব শিকদার মোহাম্মাদ আশরাফুর রহমান।

গত সপ্তাহে পাসপোর্ট বানানোর সরঞ্জাম চলে আসায় সোমবার সকলের উপস্থিতিতে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এমআরপি’র উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম।

কিছুদিন আগে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন জানিয়েছিলেন, চলতি বছরের ২৪ নভেম্বর হাতে লেখা পাসপোর্টের শেষ দিন । এই সময় অতিক্রম করার কোন সুযোগ নেই। এমআরপি ব্যতীত ২৪ নভেম্বরের পর হাতে লেখা পাসপোর্ট দিয়ে নতুন ভিসা বা কোথাও সফর করতে পারবেনা কেউ।

জানা যায়, সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, বাহরাইনসহ বিশ্বের প্রায় সকল বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশনে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট চালু হয়েছে অনেক আগে থেকেই। সেই হিসেবে লেবানন দূতাবাসের মিশনে যন্ত্রপাতি যোগ হয় অনেক পরে। এখন কথা হল ২৪ নভেম্বরের আগে কতজন লেবানন প্রবাসীদের হাতে পৌঁছবে বহুদিনের আকাক্সিক্ষত ডিজিটাল পাসপোর্ট। লেবাননের বাংলাদেশি মিশন কি পারবে এত অল্প সময়ে সবার হাতে এমআরপি পৌঁছে দিতে।

সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম বলেন, দূতাবাস শতভাগ আশাবাদী লেবাননে সময় শেষ হবার আগেই তাদের উদ্দেশ্যে উপনিত হতে পারবে। তিনি আরো জানান, আমরা প্রস্তত আর ইরিশের কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল ইসলাম উপস্থিত আছে । তার পরেও যদি আরো লোকের প্রয়োজন হয় বাংলাদেশ মন্ত্রণালয় থেকে আরো লোক আনা হবে। ইনশাল্লাহ আমরা সময় মতই সকল প্রবাসীদের হতে এমআরপি পৌঁছাতে পারব।

এদিকে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দেবাশিষ, আনোয়ারুল আযিম, মো. আবেদ প্রমুখ।

You Might Also Like