তিন সিটি নির্বাচন বিশ্বাসযোগ্য নয় : ইডব্লিউজি

নির্বাচন পর্যবেক্ষক দল ইলেকশন ওয়ার্কিং (ইডব্লিউজি) গ্রুপ বলেছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় অনিয়ম ও সহিংসতার ঘটনায় ভরপুর ছিল। তাই নির্বাচনের দিন সংগঠিত ‘অপকর্ম’ এবং অনিয়মের কারণে ইডব্লিউজি এ নির্বাচনকে বিশ্বাসযোগ্য মনে করে না।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা তাদের পর্যবেক্ষণের প্রাথমিক তথ্য তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, তিন সিটিতে ৬১৯টি কেন্দ্র থেকে তাদের ৬১৯ জন পর্যবেক্ষকের দেওয়া ভোট চিত্রের তথ্য দেখে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত তথ্য তুলে ধরেন ইডব্লিউজি’র পরিচালক আবদুল আলীম। এ সময় নির্বাচন সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন ইডব্লিউজি’র স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ, তালেয়া রেহমান ও কামরুল হাসান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, এ নির্বাচনে বিপুলসংখ্যক ব্যালট ছিনতাই করে সিল মারার ঘটনা, ভয়ভীতি প্রদর্শন, ভোট কক্ষ দখল এবং নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনা পরিলক্ষিত হয়েছে। পর্যবেক্ষিত অনেক ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ কার্যক্রমের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি গ্রহণ করা হলেও নানা ধরনের নির্বাচনী অনিয়মের কারণে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার সার্বিক সততা ক্ষুন্ন হয়েছে।

ইডব্লিউজি বলেছে, তাদের পর্যবেক্ষিত কেন্দ্রের মধ্যে ঢাকা উত্তরে ৫৫ টি, দক্ষিণে ৪৬টি এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৩৭টি কেন্দ্রে জোরপূর্বক ব্যালট পেপারে সিল মারার ঘটনা ঘটে। ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হয় ঢাকা উত্তরে ৩৩ টি, দক্ষিণে ৩৯টি ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ৩০টি কেন্দ্রে। এছাড়া সহিংসতার ঘটনা ঘটে ঢাকা উত্তরে ৬৬ টি, দক্ষিণে ২৬টি ও চট্টগ্রামে ৭২টি কেন্দ্রে।

সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া, ভোট কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া ও ভোট কেন্দ্রের ভেতরে গ্রেপ্তার চিত্র তুলে ধরে হয়। এ রকম কয়েকটি ঘটনার সুনির্দিষ্ট উদাহরণ তুলে ধরে বলা হয়, এসব অনিয়ম ও সহিংস ঘটনা ব্যাপক ঘটনার অংশমাত্র। এসব ঘটনার মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে তিন সিটি করপোরেশনে যেসব জালিয়াতির ঘটনা ঘটানো হয়েছে, তা নির্বাচনী ফলকে পরিবর্তনের উদ্দেশ্যেই করা হয়েছে। অধিকন্তু এসব ঘটনার প্রতিটি ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তা, নির্বাচন কর্মকর্তা, প্রার্থীর এজেন্ট ও নিরাপত্তা বাহিনীর সামনেই ঘটেছে।

সংবাদ সম্মেলনে প্রথমে এসব ঘটনার পেছনে একটি রাজনৈতিক দলের সমর্থকদের কথা বলা হলেও পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব বলা হয় এই রাজনৈতিক দলটি সরকার সমর্থকরা ঘটিয়েছে।

You Might Also Like