বাংলাদেশের হজ্জ কোটা কমছে

বাংলাদেশি হাজীদের জন্য ২০ শতাংশ কোটা কমাচ্ছে সৌদি সরকার। সৌদিতে বড় মসজিদের সংস্কার কাজের জন্য এই কাঁটছাট করা হয়েছে। এই হ্রাস কর্মসূচি শুধু এ বছর ও আগামী বছর কার্যকর হবে।এদিকে আবাসন সংকটের কারণে হোটেল ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগে রয়েছেন বিদেশি হজ্জ যাত্রীরা।

সৌদি সরকারের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী প্রতিবছর হজ্জব্রত পালনে এক লাখ বাংলাদেশি সৌদি আরব যান। কিন্তু নতুন নীতির ফলে দুই বছর ২০ হাজার করে বাংলাদেশি হজব্রত পালনে বঞ্চিত হবেন।

এদিকে বাংলাদেশের জন্য ২০ শতাংশ কোটা হ্রাস করার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা ও চলতি বছর থেকে বিভিন্ন হজ প্রক্রিয়ায় ইলেকট্রনিক পোর্টাল সার্ভিস বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বাংলাদেশ।

এনিয়ে জেদ্দায় গত রোববার সৌদি হজ্জ মন্ত্রী ড. বন্দর আল হাজরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন

বাংলাদেশের ধর্মমন্ত্রী মোহাম্মদ মতিউর রহমান। বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আমরা সৌদিতে হজ্জব্রত পালন ও ইলেকট্রনিক ওয়েব পোর্টাল সার্ভিস চালু এবং কোটা পুনর্বিবেচনার মতো বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এসময় সৌদি হজ্জমন্ত্রী নিশ্চিত করেছেন যে, মক্কায় বড় মসজিদের সম্প্রসারণ কাজের জন্য ২০ শতাংশ কোটা হ্রাস শুধু এ বছরই নয়, আগামী বছরও প্রয়োগ করা হবে।

এ সময় ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান হজ্জব্রত নির্বিঘ্ন ও হাজীদের সেবা নিশ্চত করতে সৌদি কর্তৃপক্ষের নেয়া পদক্ষেপের প্রশংসা করেন। দুটি পবিত্র মসজিদের সংস্কার কাজের উদ্যোগ নেওয়ায় বাংলাদেশ সরকার সৌদি বাদশাহ আবদুল্লাহকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

You Might Also Like